ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিক নিয়ে বড় সিধান্ত রাজ্যের, নবান্নের অনুমোদন মিললেই নির্ঘন্ট প্রকাশ

 

নিউজ ডেস্ক: সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছেন আগামী মাস অর্থাৎ নভেম্বর থেকেই খুলতে চলেছে স্কুল। আগামী ১৬ নভেম্বর থেকে রাজ্যে খুলতে চলেছে স্কুল। করোনাভাইরাস পরিস্থিতির জন্য লাগাতার কয়েক মাস রাজ্যে বন্ধ রয়েছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যার অবসান ঘটতে চলেছে নভেম্বরে। স্কুল খোলার পর আগামী বছরের মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় নজর রাজ্য সরকারের। জানা গেল, ২০২২ সালের মার্চের প্রথম সপ্তাহে মাধ্যমিক পরীক্ষা হতে পারে এবং এপ্রিল মাসের শুরুতে হতে পারে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা।

স্কুল খোলার সিদ্ধান্তের পর জোড়া পরীক্ষায় সরকারের নজর রয়েছে। জানা গেছে, মার্চের প্রথম সপ্তাহে মাধ্যমিক এবং এপ্রিলের শুরুতেই উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়ে নেওয়া হতে পারে। পাশাপাশি, এপ্রিলের শেষে জয়েন্ট এন্ট্রান্সও নিয়ে নেওয়া হবে। পর্ষদ ও সংসদের সঙ্গে সরকারের আলোচনায় এই সিদ্ধান্ত বলেই জানা গেছে। নবান্নের অনুমোদন মিললেই জোড়া পরীক্ষার সময়সূচী ঘোষণা করে দেওয়া হবে। কালীপুজোর আগেই নির্ঘণ্ট ঘোষণার সম্ভাবনা রয়েছে। সেক্ষেত্রে টেস্ট পরীক্ষা হবে কিনা, স্কুলের উপরে ছাড়ল সরকার।

করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য গত বছর ১৬ মার্চ থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয় সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। মুখ্যমন্ত্রী প্রাথমিক ভাবে ৩১ মার্চ পর্যন্ত স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু তার পর করোনা সংক্রমণ নতুন করে বৃদ্ধি পাওয়ায় স্কুল-কলেজ বন্ধ হয়ে যায়। মাঝে কিছুদিনের জন্য নবম থেকে দ্বাদশের পঠন-পাঠন চালু হলেও করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের কারণে তা বন্ধ হয়ে যায়। এবার করোনা সংক্রমণ কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসায় ২০ মাস পর স্কুল খোলার নির্দেশ দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

শিক্ষা দফতর এই তিনটি পরীক্ষার সময়ের চূড়ান্ত অনুমোদন চেয়ে প্রস্তাব পাঠিয়েছে নবান্নে। নবান্ন সবুজ সংকেত দিলেই পরবর্তী পদক্ষেপ এবং নির্দিষ্ট দিন ঘোষণা করবে শিক্ষা দফতর। জানা গিয়েছে পরীক্ষা কেন্দ্র স্যানিটাইজ করে পড়ুয়াদের পরীক্ষা নেওয়া হবে। পরীক্ষার্থীরা পরীক্ষাকেন্দ্রে গিয়েই পরীক্ষা দেবেন, অর্থাৎ পরীক্ষা হবে অফলাইনেই। 

দীর্ঘ দিন ধরে স্কুল বন্ধ থাকার কারণে একাধিক পরিকাঠামোগত সমস্যা তৈরি হয়েছে স্কুল কলেজগুলির। সেগুলি আগামী কয়েকদিনে যাতে সামলে নেওয়া যায়, তার জন্যও বেশ কিছুটা সময় নির্দিষ্ট করে রাখার কথা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী।