ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে অনলাইন ইন্টারভিউ নেওয়ার ভাবনা SSC-র

 

নিউজ ডেস্ক: আদালতের সময়সীমা অনুযায়ী প্রার্থীদের ৩১ জুলাই মধ্যে উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। যদিও বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে প্রার্থীদের এনে ইন্টারভিউ করানো সম্ভব নয়। সে ক্ষেত্রে অনলাইনে ইন্টারভিউ কিভাবে করা সম্ভব তা নিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই আলোচনা চলছে বলে জানা গেছে। শিক্ষা দপ্তরের সঙ্গে এই বিষয়ে আলোচনা চলছে স্কুল সার্ভিস কমিশনের।  

 আদালতের রোষ থেকে বাঁচতে উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া অনলাইনে করার কথা ভাবছে  এসএসসি। বিকাশ ভবন সূত্রে এমন তথ্যই পাওয়া যাচ্ছে। তবে পুরো ব্যাপারটাই আলোচনা স্তরে রয়েছে। ১৪  হাজারের কিছু বেশি শূন্য পদের জন্য ২০ হাজারেরও বেশি প্রার্থীকে ইন্টারভিউয়ে ডাকতে হবে। এ ব্যাপারে প্রযুক্তিগত পরামর্শও নেওয়া হচ্ছে। 

উচ্চ প্রাথমিক8 ইন্টারভিউয়ের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ এবং প্রক্রিয়া শুরুর জন্য আদালতে চার সপ্তাহের সময় চেয়েছিল কমিশন। সোমবারই শেষ হয়েছে সেই সময়সীমা। যদিও আবেদনের সময় এ বিষয়ে কোনও সিদ্ধান্ত জানায়নি আদালত। এ বিষয়ে মূল মামলার বিচারপতি যেহেতু ছিলেন মৌসুমি ভট্টাচার্য, তাই তাঁর এজলাসেই মামলাটি পাঠিয়েছিলেন সংশ্লিষ্ট বিচারপতি। এর মধ্যে মৌসুমি ভট্টাচার্যের এজলাসে কোনও মামলার শুনানি হয়নি বলেই মামলাকারী প্রার্থীদের দাবি। এদিকে ১০ মে ছিল ইন্টারভিউয়ের প্রার্থী তালিকা প্রকাশের চূড়ান্ত সময়সীমা। সেটা করতে ব্যর্থ হওয়ার পরেই কমিশন আদালত অবমাননার ভয়ে হাইকোর্টে গিয়ে সময় চায়। বিচারপতি সরাসরি বাড়তি সময় না দিয়ে মৌসুমি ভট্টাচার্যের এজলাসে মামলাটি পাঠান। সেটাকেই বর্ধিত সময়সীমা ধরে নেওয়া হয়েছিল। তবে সেটিও পেরিয়ে গেল। আগামী বেশ কিছুদিন মৌসুমি ভট্টাচার্যের মামলা শোনার সম্ভাবনা নেই হাইকোর্ট প্রকাশিত বিচারপতিদের তালিকা অনুযায়ী। এই অবস্থায় কমিশনের পদক্ষেপ কী হয়, সেটাই দেখার। 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, হাই কোর্টের (Calcutta HC)  নির্দেশ ছিল, ইন্টারভিউয়ের তালিকা প্রকাশ করতে হবে ১০ মে’র মধ্যে। এরপর আট সপ্তাহের মধ্যে সম্পূর্ণ মেধাতালিকা প্রকাশ করে গোটা নিয়োগ প্রক্রিয়া ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে সম্পূর্ণ করতে বলা হয়েছে কমিশনকে। যদিও স্কুল সার্ভিস কমিশন ইন্টারভিউয়ের তালিকা বের করতে পারেনি। এক্ষেত্রে করোনাকে ঢাল করছে কমিশন।