ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

শীঘ্রই ১৭ জন শিক্ষকের চাকরি বাতিল হবে, প্রকৃত তথ্য দেওয়ার নির্দেশ দিলেন বিচারপতি

শীঘ্রই ১৭ জন শিক্ষকের চাকরি বাতিল হবে, প্রকৃত তথ্য দেওয়ার নির্দেশ দিলেন বিচারপতি

নিউজ ডেস্ক: স্কুল সার্ভিস কমিশনের নিয়োগ দুর্নীতি কাণ্ডে বেআইনি সমস্ত নিয়োগ বাতিল করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। নবম-দশমে কতজন বেআইনি নিয়োগ পেয়েছেন তাঁর সংখ্যা জানতে চান বিচারপতি। প্রাথমিক ভাবে মামলাকারীরা জানায় সংখ্যাটা ১৭। এই ১৭ জনের চাকরি বাতিল করে বেআইনি সমস্ত নিয়োগ বাতিলের প্রক্রিয়া শুরু করতে চান বিচারপতি।

কমিশন নথি খুঁজে দেখে কতজনের বেআইনি নিয়োগ তারা খুঁজে পেয়েছে? কমিশন আইনজীবী বলেন, সিবিআই তদন্ত করছে, অনেককে হেফাজতে রেখে তদন্ত চলছে তারা প্রকৃত সংখা জানাতে পারবে। বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় পাল্টা বলেন, সিবিআই দ্রুত সংক্ষিপ্ত রিপোর্ট দিক কতজন বেআইনি নিয়োগ হয়েছে। বিচারপতির সংযোজন, যথাযথ নথি/পরিসংখ্যান পেলেই আমি মেধাবী ওয়েটিং লিস্ট পরীক্ষার্থীদের নিয়োগ দেব।

কমিশনের আইনজীবী পাল্টা বলেন, ''বেআইনি নিয়োগের প্রকৃত সংখা বলা খুব মুশকিল। পর্দার আড়ালে কত বেআইনি নিয়োগ তা তদন্ত না শেষ হলে বলা অসুবিধার। মেধাতালিকা প্রকাশিত, যারা হাইজাম্প করে নিয়োগ পেয়েছে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করলেই বিষয়টি স্পষ্ট হবে।'' এরপরই কমিশনের উদ্দেশ্যে বিচারপতি বলেন, ''কমিশন কি মনে করে অন্যায় ভাবে নিয়োগ প্রাপকরা জিজ্ঞাসাবাদে টেবিলে বসলেই সব সত্যি বলে দেবে!''

বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, ''১৭ বেআইনি নিয়োগ নবম-দশম শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগে আদালতের কাছে। এই ১৭ বেআইনি নিয়োগ দিয়েই শুরু হোক। সিবিআই এবং কমিশন, উভয়েই ১৭ বেআইনি নিয়োগের প্রকৃত তথ্য দিক।'' এসএসসি বঞ্চনায় ভুক্তভোগী সমস্ত মেধাবী পরীক্ষার্থীদের, (ওয়েটিং লিস্টে থাকা) নিয়োগ দেওয়ার পথে হাঁটতে চায় হাইকোর্ট। ২৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যে রিপোর্ট পেশের নির্দেশ সিবিআই এবং কমিশনকে।