ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ভুল স্বীকার, ফের কাঠগড়ায় SSC, বড় নির্দেশ আদালতের

নিউজ ডেস্ক: একাধিক প্রশ্নের ক্ষেত্রে ওএমআর শিটে কোনও অপশনেই ঠিক উত্তরটা ছিল না। চারটি অপশনের সবকটাতেই ভুল ছিল। স্কুল সার্ভিস কমিশনের তরফে স্বীকার করে নেওয়া হয় যে, উত্তরপত্রে ভুল ছিল। ভুলের কথা আদালতে স্বীকার করার পর চাকরি প্রার্থীদের নম্বর দেওয়ার নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। 

মামলার রেশ থেকেই যাচ্ছে। স্কুল সার্ভিস কমিশনের বিরুদ্ধে ফের অনিয়মের অভিযোগ। এবার ২০১৬ সালের নবম-দশম এবং একাদশ-দ্বাদশের স্টেট লেভেল সিলেকশন টেস্টে (এসএলএসটি) বেশ কিছু প্রশ্নের উত্তরের বিকল্পে ভুল থাকা সত্ত্বেও ওই সেই নম্বর দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। এ নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন একাধিক প্রার্থী। নবম-দশমের ক্ষেত্রে ২০ জন এবং একাদশ-দ্বাদশের ক্ষেত্রে দু’জন প্রার্থী আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। 

২০১৬ সালের এসএলএসটি নবম-দশম ও এসএলএসটি একাদশ-দ্বাদশের ইতিহাসের  ৬ ও ৪০ নম্বর প্রশ্নের ও একাদশ- দ্বাদশের ক্ষেত্রে ১১, ১২ ও ২৩ নম্বর প্রশ্ন নিয়ে অভিযোগ জানিয়েছেন মামলাকারীরা। এ নিয়েই প্রশ্ন তুলেছিলেন মামলাকারীরা। 

সোমবার বিচারপতি রাজাশেখর মান্থার এজলাসে এই মামলার শুনানিতে অভিযোগের কথা স্বীকার করে নেয় এসএসসি কর্তৃপক্ষ। এরপর বিচারপতির নির্দেশ, এসএসসি কর্তৃপক্ষ যেহেতু প্রশ্নে ভুলের বিষয়টি স্বীকার করে নিয়েছে, তাই মামলাকারীদের ওই বাবদ নম্বর দিতে হবে। 

মনে করা হচ্ছে, আদালতের এই নির্দেশ শুধু মামলাকারীদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে না। যেহেতু এসএসসি কর্তৃপক্ষ নিজেই ভুল স্বীকার করে নিয়েছে, তাই যেসব পরীক্ষার্থী ওই প্রশ্নগুলির উত্তর দিয়েছিলেন, তাঁদেরও ওই বাড়তি নম্বর দেওয়া হতে পারে। এবিষয়ে এসএসসি কর্তৃপক্ষ পরবর্তীকালে সিদ্ধান্ত  নিতে পারে।