ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

ব্রেকিং: টেট মামলার রায় ঘোষণা, ২৭৩ জনের বাতিল চাকরি ফেরানোর আর্জি খারিজ, খারিজ হয়ে গেল মানিক ভট্টাচার্যের আবেদন

নিউজ ডেস্ক: কলকাতা হাইকোর্টে বড় ধাক্কা খেলেন প্রাক্তন প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের চেয়ারম্যান মানিক ভট্টাচার্য। সিঙ্গেল বেঞ্চের রায়কে মান্যতা দিল ডিভিশন বেঞ্চ।  মানিক ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে সিবিআই তদন্ত জারি থাকবে। CBI তদন্ত বন্ধের আর্জি খারিজ করে দিল কলকাতা হাইকোর্ট। 

মানিকবাবুর বোর্ড সভাপতি পদ থেকে সরানোর অর্ডার সঠিক বলেও মান্যতা দিয়েছে ডিভিশন বেঞ্চ। পাশাপাশি, ২৭৩ জনের চাকরি ফেরানোর আবেদনও খারিজ হয়ে গেল। অর্থাৎ এই মুহূর্তে এই ২৭৩ জন চাকরি পাচ্ছেন না। আদালত জানিয়ে দিল, তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাঁদের পুনর্বহাল করা যাবে না। 

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে দায়ের হওয়া জোড়া মামলার শুনানি শেষ করে রায় দান স্থগিত রেখেছিল হাই কোর্ট। আজ, মামলার রায় ঘোষণা করল বিচারপতি সুব্রত তালুকদার ও বিচারপতি লপিতা বন্দোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ। 

সিবিআই (CBI) থেকে মানিক-অপসারণ, সিঙ্গল বেঞ্চের রায় চ্যালেঞ্জ করে মামলা করা হয়। সিঙ্গেল বেঞ্চের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হয় রাজ্য, প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ, পর্ষদ সভাপতি সহ চাকরি থেকে বহিষ্কৃত প্রার্থীরা। 

রায় দান স্থগিত রাখে কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। আজ, সেই বহু প্রতীক্ষিত মামলার রায়দান হল। 

শুক্রবার সকাল এগারোটা নাগাদ ডিভশন বেঞ্চে রায় দানের প্রক্রিয়া শুরু হয়। ৮৫ পাতার রায় পড়তে শুরু করেন বিচারপতি সুব্রত তালুকদার। বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের একক বেঞ্চের রায় বহাল রেখে তিনি জানান, একক বেঞ্চই তদন্তকারী সংস্থার কাছ থেকে রিপোর্ট চাইতে পারবে। 

এদিন হাই কোর্টের রায় অনুযায়ী, পর্ষদের নথি ফরেনসিক পরীক্ষার নির্দেশ বহাল থাকবে। সিঙ্গল বেঞ্চ মামলা পর্যবেক্ষণ করবে। কোর্টের নজরদারিতে তদন্ত হবে। নির্দিষ্ট সময় পরপর রিপোর্ট চাইতে পারবে সিঙ্গেল বেঞ্চ। কিছু বিরূপ মন্তব্য নির্দেশনামা থেকে মুছে ফেলা হল। ২৬৯ বরখাস্ত প্রার্থী দ্রুত শুনানির আর্জি জানাতে পারবেন না।