ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

'আইন বিরুদ্ধ রায় হয়েছে, SSC-র কোনও রেকর্ড নেই’, হাইকোর্টের রায় নিয়ে ফের বিস্ফোরক অরুণাভ ঘোষ

হাইকোর্টের রায় নিয়ে ফের বিস্ফোরক অরুণাভ ঘোষ

নিউজ ডেস্ক: স্কুল সার্ভিস কমিশনের নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের রায় প্রসঙ্গে ফের বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন প্রবীণ আইনজীবী তথা কংগ্রেস নেতা অরুণাভ ঘোষ। ববিতা-অঙ্কিতা নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন অরুণাভ। বললেন, ‘আইন বিরুদ্ধ রায় হয়েছে। টিভি-৯ বাংলার সাক্ষাৎকারে এমনই দাবি করলেন তিনি। 

স্কুল সার্ভিস কমিশনের নিয়োগ দুর্নীতি এবং আন্দোলন নিয়ে অরুণাভ ঘোষ বলেন, “আমরা যারা বিরোধী রাজনীতি করি তাঁরাও তো চাকরি প্রার্থীদের কোনও না কোনওভাবে নিজেদের কাজে লাগাচ্ছি। ধরনা মঞ্চে গিয়ে বক্তৃতা দিচ্ছি। ২ দিনের মধ্যে যদি মমতা পদত্যাগ করেন আমি ২৭ হাজার চাকরি দিয়ে দেব, একজন বড় আইনজীবী এ কথা বলছেন। নাম বলছিনা। এটা কী মিথ্যা কথা নয়? আমি একটা আন্দোলনকারী মেয়েকে বললাম মেরিট লিস্টে তোমার নাম আছে এটা কী করে জানলে? সে বলতে পারছে না। কঠোর বাস্তবতাটা আমরা কখনও মানুষের কাছে তুলে ধরিনা। লিস্ট বার করে বড় বড় আইনজীবী-নেতারা মামলা করছেন না কেন? কারণ কোনও রেকর্ডই নেই।”

একইসঙ্গে অরুণাভ বলেন, “ববিতা-অঙ্কিতার ক্ষেত্রে আইন বিরুদ্ধ রায় হয়েছে। সংবিধানের ২৩ ধারায় বলা আছে বেগার খাটা চলবে না। সুপ্রিম কোর্ট বলছে আমাকে যদি কেউ বেআইনিভাবে চাকরিও দেয়, আমি যদি চাকরিটা করি, আমি যদি শ্রম দিই, তাহলে আমাকে শ্রমের টাকাটা দিতে হবে। কিন্তু শ্রমের টাকাটা কেটে নেওয়া হল? আমি জানলামই না আমার বিরুদ্ধে মামলা হয়ে গেল। আমার ৮ লক্ষ টাকা ফেরৎ দিলাম। আমার ফাঁসির রায় হয়ে গেল আমি জানলাম না।”

এরপর শহীদ ক্ষুদিরাম বসু প্রসঙ্গে তুলে তিনি বলেন, “ক্ষুদিরামের বিরুদ্ধে প্রমাণ ছিল সে গুলি করেছে। তাঁর বিরুদ্ধেও সাক্ষী দিতে হয়েছে ব্রিটিশ আমলে। যাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ তাঁকে তো সুযোগ দিতে হবে বলার। তাঁর বিরুদ্ধে রায় হয়ে যাচ্ছে সে জানে না। তাঁকে পার্টি করা হয়নি।”