ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

ডিএ মামলায় রাজ্য সরকারের রিভিউ পিটিশন গ্রহণ করল কলকাতা হাইকোর্ট

 ডিএ মামলা কলকাতা হাইকোর্ট

নিউজ ডেস্ক: রাজ্য সরকারি কর্মীদের ডিএ মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশের পুনর্বিবেচনার আর্জি জানিয়েছে রাজ্য সরকার। বৃহস্পতিবার একটি রিভিউ পিটিশন দাখিল করে রাজ্য। গত মে মাসে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডন ও বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্তের ডিভিশন বেঞ্চ রায় দিয়েছিল, আগামী তিন মাসের মধ্যে সরকারি কর্মীদের সকল বকেয়া মহার্ঘ ভাতা মিটিয়ে দিতে হবে।

রাজ্যের আবেদন গ্রহণ করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। ডিএ মামলায় রাজ্য সরকারের রিভিউ পিটিশন আজ গ্রহণ করল আদালত। আগামি ২৯ আগস্ট বিচারপতি হরিশ টন্ডন ও বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্তের  ডিভিশন বেঞ্চে রিভিউ পিটিশনের শুনানি হবে।

কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছিল তিন মাসের মধ্যে বকেয়া ডিএ বা মহার্ঘ ভাতা রাজ্য সরকারি কর্মীদের মিটিয়ে দিতে হবে। একই সঙ্গে মন্তব্য করা হয়েছিল, ডিএ হল একজন কর্মচারীর মৌলিক অধিকার। সেই সময় প্রায় শেষ হতে চলল। আর মাত্র দিন দশেক বাকি আছে। এরই মধ্যে ফের কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হল রাজ্য। আগের নির্দেশ পুনর্বিবেচনার করার আর্জি জানিয়ে আদালতের দরজায় গিয়েছে নবান্ন। 

এ রাজ্যের সরকারি কর্মীদেরও কেন্দ্রীয় হারে ডিএ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল  স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনাল (SAT)। এমনকী,  ৩ মাসের মধ্যে যাবতীয় প্রক্রিয়া শেষ করে ফেলারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল মুখ্যসচিবকে। কিন্তু সেই নির্দেশ কার্যকর হয়নি কেন? হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সংগঠনগুলি। স্যাটের নির্দেশই বহাল রাখে আদালত।

আগামী ১৯ অগস্টের মধ্যে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ৩১ শতাংশ ডিয়ারনেস অ্যালোওয়েন্স বা মহার্ঘ ভাতা (ডিএ) মিটিয়ে দিতে হবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে। সেই সময়সীমা পেরিয়ে গেলেই আদালত অবমাননার মামলা দায়ের করা হতে পারে। তারই মধ্যে ফের আদালতের  হয়।