ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

‘২ ঘণ্টার মধ্যে ১৭ হাজার ছেলেমেয়েকে চাকরি দেব’, তবে একটাই শর্ত রাখলেন বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য

নিউজ ডেস্ক: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্যের পাল্টা প্রতিক্রিয়া দিলেন আইনজীবী তথা সিপিএম নেতা বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। ‘২ ঘণ্টার মধ্যে ১৭ হাজার ছেলেমেয়েকে চাকরি দেব’, তবে একটাই শর্ত রাখলেন তিনি। মঙ্গলবার পূর্ব বর্ধমানের সভা থেকে প্রকাশ্যে মুখ্যমন্ত্রী দাবি করলেন, মামলাকারীদের আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যের জন্যই নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ করা হয়েছে। মমতা এই বার্তা দেওয়ার পরই বিকাশ ভট্টাচার্য দাবি করলেন, ১৭ হাজার ছেলেমেয়েকে চাকরি দিতে মাত্র ২ ঘণ্টা সময় লাগবে তাঁর। তার জন্য শুধু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পদত্যাগ করতে হবে।

বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য বলেন, ‘উনি পদত্যাগ করুন। আমি চাকরির ব্যবস্থা করে দিচ্ছি। আদালতে মামলা হল কেন? দুর্নীতি আর কাটমানির জন্যই মামলা হয়েছে। কাটমানির ব্যবস্থা বন্ধ করে দিলেই চাকরি হবে। আসলে মামলাকারীদের বিরুদ্ধে তোপ দেগে আদতে যোগ্য ও শিক্ষিত প্রার্থীদের মুখ্যমন্ত্রী বিভ্রান্ত করছেন। সাহস থাকলে পদত্যাগ করুন।’

আইনজীবী আরও বলেন, ‘উনি সরে যান। ১৭ হাজার ছেলেমেয়েকে আমার বাড়িতে পাঠিয়ে দিন। আমি চাকরি দেব। কোনও অসুবিধা হবে না। কোনও আদালত আটকাবে না। ওঁর ছেলেরা কান্নাকাটি করবে, এর থেকে বেশি কিছু হবে না।’

এর আগে শিক্ষক নিয়োগ ও রাজ্যের কর্মসংস্থান প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আমি খোঁজ নিয়েছি, ১৭ হাজার শিক্ষকের চাকরি রয়েছে আমার কাছে। কিন্তু আমি নিয়োগ করব কীভাবে? আদালত অনুমতি না দিলে নিয়োগ করা তো সম্ভব নয়। আমি বরাবরই বলেছি, সব ক্ষেত্রেই আদালতের সিদ্ধান্ত মেনে চলতে হবে।” 

এরপরই বামনেতা তথা আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যকে নিশানা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা বলেন, “বিকাশবাবু একের পর এক মামলা করছেন। আদালত নিয়োগ বন্ধ করে দিচ্ছে। ওনার তো অর্থের কোনও অভাব নেই। কিন্তু সমস্যায় ভুগতে হচ্ছে আপনাদের। আপনারা বিকাশবাবুদের গিয়ে বলুন, আপনাদের জন্য চাকরি আটকে যাচ্ছে আপনাদের দিতে হবে।” 

চাকরি প্রার্থীদের উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'এই বিষয়গুলো কোর্টে আছে। আপনারা কোর্ট অর্ডার নিয়ে আসুন, আমার হাতে ১৭ হাজার নিয়োগ তৈরি। রাজ্য মন্ত্রিসভায় আরও পাঁচ হাজার শূন্যপদ তৈরি করেছি। কোর্ট বললেই নিয়োগ করব। কারণ আপনারা কোর্টে গিয়েছেন, তাই কোর্ট অর্ডার ছাড়া আমি নিয়োগ করতে পারব না। আদালতে অনুমতি না দিলে আমি কীভাবে চাকরি দেব?' 

মুখ্যমন্ত্রীর ১৭ হাজার চাকরির পরিসংখ্যান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন আইনজীবী বিকাশ ভট্টাচার্য। বিকাশ বাবুর দাবি, ১৭ হাজার সংখ্যাটা কোথা থেকে পাওয়া গেল, তা তাঁর জানা নেই। কারণ বিজ্ঞপ্তিতে যে সংখ্যাটা ছিল, সেটা আরও বেশি। তাহলে ১৭ হাজার কেন? আইনজীবী উল্লেখ করেছেন, মমতার দল টাকা খেয়ে ১৭ হাজার লোককে চাকরি দিয়েছিল, সেটা প্রমাণ হয়ে গিয়েছে।