ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

মেয়ের চাকরি চলে গেছে, বাবা পেলেন নতুন পদ! মন্ত্রী পরেশকে দেওয়া হল রোগীকল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব

নিউজ ডেস্ক: মেয়ের শিক্ষিকাপদে চাকরি চলে যাওয়ার পর মন্ত্রী পরেশ অধিকারীকে দেওয়া হল রোগীকল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব। শুক্রবার ২১৮টি গ্রামীণ হাসপাতালের রোগীকল্যাণ সমিতির চেয়ারপার্সনদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। সেই তালিকায় নাম রয়েছে বিতর্কিত এই মন্ত্রীর নাম। এই নাম ঘিরেই জোর জল্পনা শুরু হয়েছে।

কোচবিহারের হলদিবাড়ি গ্রামীণ হাসপাতালের রোগীকল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান করা হয়েছে মন্ত্রী পরেশ অধিকারীকে। হাসপাতালে রোগীর চিকিৎসা সংক্রান্ত যাবতীয় দেখভালের দায়িত্ব থাকেন রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান। একইসঙ্গে হাসপাতালে কোনও পরিষেবা জনিত সমস্যা হচ্ছে কি না সেদিকেও কড়া নজর রাখেন তিনি। 

অন্য দিকে, মেডিক্যাল কলেজের রোগীকল্যাণ সমিতির সদ্য প্রাক্তন চেয়ারম্যান নির্মল মাজিকে আমতা এবং বৃন্দাবনপুর গ্রামীণ হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারপার্সন করা হয়েছে। সম্প্রতি তাঁকে মেডিক্যাল কলেজের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। তাঁর জায়গায় নুতন চেয়ারম্যান হন বিধায়ক সুদীপ্ত রায়। নির্মল মাজিকে সরানো নিয়ে যথেষ্ট আলোচনাও হয়। তাকেও পদ দেওয়া হল। 

তবে পরেশ অধিকারীর নতুন দায়িত্ব দেওয়া নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে। শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশের বিরুদ্ধে দুর্নীতির করে মেয়েকে স্কুলে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। আদালতের নির্দেশে তাঁর মেয়ে অঙ্কিতা অধিকারীর চাকরি গিয়েছে। এমনকি, এত দিন পাওয়া বেতনের টাকাও ফেরত দিতে হয়েছে। বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় বিতর্কিত এই মন্ত্রীর মন্ত্রিসভা থেকে সরানোর সুপারিশ করেছিলেন। তবে রাজ্য সে পথে হাটেনি। 

শুক্রবার ২১৮টি গ্রামীণ হাসপাতালের রোগীকল্যাণ সমিতির চেয়ারপার্সনদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। সেই তালিকায় পরেশ ছাড়াও নাম রয়েছে শত্রুঘ্ন সিন্হা, মিমি চক্রবর্তী, শতাব্দী রায়ের।