ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

আদালতের নির্দেশে বেড়েছে নম্বর, প্রাইমারি স্কুলে চাকরি পাচ্ছেন ৭৩৮ জন, পর্ষদ জানাল…

নিউজ ডেস্ক: ভালো খবর চাকরি প্রার্থীদের জন্য। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে বাড়ল নম্বর, প্রাথমিক শিক্ষক পদে চাকরি পাচ্ছেন ৭৩৮ জন চাকরি প্রার্থী।

২০১৪-য় প্রাথমিক শিক্ষক পদে নিয়োগের পরীক্ষায় কয়েকটি প্রশ্নে ‘ভুল’ ছিল। মেধা তালিকায় জায়গা পাননি ৭৩৮ জন। চাকরিপ্রার্থীদের মামলার প্রেক্ষিতে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদকে নম্বর বাড়ানোর নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। আদালতের নির্দেশে নম্বর বাড়ার পরে মেধাতালিকায় জায়গা পেলেন ৭৩৮ জন।

কাল-পরশুর মধ্যে নিয়োগপত্র দেওয়া হবে, জানালেন প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ সভাপতি।

আজই মেধাতালিকা প্রকাশিত হয়েছে। ৭৩৮ জনের তালিকা দেখতে এখানে ক্লিক করুন।

গত ২৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের জন্য তথ্য যাচাই এবং ইন্টারভিউ চলছিল। ২০১৪ সালে প্রাথমিকের টিচার্স এলিজিবিলিটি টেস্ট (Primary TET)-এ ভুল প্রশ্নের জন্য প্যানেল থেকে বাদ পড়েছিলেন হাজারখানেক প্রার্থী। তাঁদেরই অনেকে এবার সুযোগ পেতে চলেছেন।

রাজ্যে প্রাথমিকে ১৬,৫০০ শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে অপেক্ষায় থাকা চাকরি প্রার্থীদের প্রথম ধাপে ৪৭৪ জন শিক্ষককে নিয়োগের পরে এবার আরও ৭৩৮ জন প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ করেছে রাজ্য প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ (WBBPE)।

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে স্কুল সার্ভিস কমিশনের নিয়োগকে কেন্দ্র করেও একাধিক বিতর্ক দানা বেঁধেছে। কখনও গ্রুপ সি, গ্রুপ ডি আবার কখনও নবম-দশম শ্রেণি শিক্ষক নিয়োগ কে কেন্দ্র করে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। হাইকোর্ট একাধিকবার সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেয়। নিয়োগকে কেন্দ্র করে দুর্নীতি হয়েছে, একাধিকবার সেই অভিযোগ উঠেছে। স্কুল সার্ভিস কমিশনে (SSC) কাজ কীভাবে আরও স্বচ্ছ করা যায় তার জন্য এবার বেশ কয়েকজন আধিকারিককে নিয়োগ করা হতে চলেছে। ইতিমধ্যেই দু'জন আধিকারিককে নিয়োগ করেছে স্কুল সার্ভিস কমিশন (WBSSC)।