ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

হাইকোর্টের খোঁচায় 'অযোগ্যের' চাকরি বাতিল! মুর্শিদাবাদের স্কুলশিক্ষকের চাকরি বাতিল করল SSC

 

নিউজ ডেস্ক: হাইকোর্টের খোঁচায় 'অযোগ্যের' চাকরি বাতিল করে দিলো SSC। প্রথমে ভুল কবুল ও পরে ভুল সংশোধন। হাইকোর্টের কড়া পর্যবেক্ষণে স্কুল সার্ভিস কমিশনের ভুল শুধরে নেওয়া। মুর্শিদাবাদের স্কুল শিক্ষকের চাকরি বাতিল করে দিলো এসএসসি। গ্রুপ ডি, গ্রুপ সি পর নবম-দশম শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগে উঠে এলো এসএসসি ভুল। 

কলকাতা হাই কোর্টের (Calcutta High Court) নির্দেশের জের। মুর্শিদাবাদের এক শিক্ষকের চাকরি বাতিল করল পশ্চিমবঙ্গ স্কুল সার্ভিস কমিশন। সাম্প্রতিক সময়ে এমন পদক্ষেপ অত্যন্ত বিরল বলেই দাবি ওয়াকিবহল মহলের।

SSC-এর নবম-দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছিলেন প্রশান্ত দাস নামে এক ব্যক্তি। দাবি করেছিলেন, মেধাতালিকায় উপরের দিকে নাম থাকা সত্ত্বেও তিনি চাকরি পাননি। কিন্তু নীলমণি বর্মন নামে এক ব্যক্তি মেধাতালিকায় নিচের দিকে নাম থাকা সত্ত্বেও চাকরি পেয়েছেন। এই মর্মে প্রশান্ত দাসের হয়ে কলকাতা হাই কোর্টে মামলা করেন আইনজীবী ফিরদৌস শামিম। অক্টোবরে দায়ের হয়েছিল সেই মামলা।

মামলাটি উঠেছিল বিচারপতি অমৃতা সিংহের সিঙ্গল বেঞ্চে। সেই মামলার শুনানিতে এসএসসি আদালতে জানায় যে, ওই নিয়োগে কিছু সমস্যা ছিল। এরপরই আদালতের তরফে প্রশ্ন তোলা হয়, নিয়োগে ভুল থাকলে কেন বেতন দেওয়া হচ্ছে ওই শিক্ষককে।

পরে এসএসসির তরফে চিঠি দিয়ে মামলাকারী প্রশান্ত দাসের আইনজীবী ফিরদৌস শামিমকে জানানো হয়েছে, নীলমণি বর্মনের চাকরি বাতিলের বিষয়টি। এবিষয়ে মামলাকারীর আইনজীবী বলেন, “একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়, এরকম আরও অনেক ঘটনা রয়েছে। সব ক্ষেত্রেই অবিলম্বে পদক্ষেপ গ্রহণ প্রয়োজন।”