ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

IAS Success: কথা বলতে বা শুনতে পারেন না কিন্তু প্রথম প্রচেষ্টায় আইএএস হয়ে তাক লাগলেন ডি রঞ্জিত

নিউজ ডেস্ক: তিনি শ্রবণ ও বাক প্রতিবন্ধী। তবে এই শারীরিক সমস্যা তাঁর স্বপ্নপুরণে বাঁধা হতে পারেনি। তামিলনাড়ুর কয়েম্বাটুর থেকে 27 বছর বয়সী ডি রঞ্জিত, তার প্রথম প্রচেষ্টায় কঠিন সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় এবারে 750 তম স্থান অর্জন করেছেন। 

তিনি দ্বাদশের পরীক্ষায় শ্রবণ-প্রতিবন্ধী বিভাগে তামিলনাড়ুতে শীর্ষে ছিলেন। কলেজে 80 শতাংশ নম্বর পেয়েছিলেন। রঞ্জিত জানিয়েছেন, “আমার একটি কোম্পানিতে কাজ করার সব গুণ ছিল কিন্তু আমি প্রত্যাখ্যাত হয়েছিলাম।  তখনই আমি ইউপিএসসি -র পড়া শুরু করি।” রঞ্জিতের লক্ষ্য প্রতিবন্ধী মানুষজনকে সাহায্য করা।

তার মা, যিনি বিশেষ শিক্ষায় বিএড করেছেন, শুক্রবার ইউপিএসসি ফলাফল ঘোষণার পর যেন স্বপ্নের জগতে চলে গেছেন।  

রঞ্জিতের মা অমৃতভল্লি সংবাদমাধ্যমকর বলেছেন, “আমরা তার ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত ছিলাম। কিন্তু আজ আমাদের সমস্ত উদ্বেগ কেটে গেছে এবং আমরা খুশি এবং গর্বিত।”

রঞ্জিত তামিল সাহিত্যকে তার ঐচ্ছিক বিষয় হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন এবং তামিল ভাষায় পরীক্ষা দিয়েছিলেন।

কে সবরিনাথন, একজন প্রশিক্ষক যিনি রঞ্জিতকে বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিয়েছিলেন, বলেন, "রঞ্জিত সবসময়ই সামনের সারিতে বসতেন এবং ক্লাসে পড়ার সময় আমাদের ঠোঁট দেখে বুঝতেন।"

কয়েম্বাটুরের ভি এস নারায়ণ শর্মা এবারে সর্বভারতীয় সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় 33 তম স্থান অর্জন করেছেন এবং তামিলনাড়ু রাজ্যের মধ্যে প্রথম হয়েছেন। 

এই বছর, তামিলনাড়ুর 36 জন ছাত্র সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে।  গত বছর, 45 জন প্রার্থী তামিলনাড়ুর থেকে সফল হয়েছিল।