ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

১৯ জুলাই থেকে উচ্চ প্রাথমিকের ইন্টারভিউ শুরু, স্বচ্ছ ভাবে নিয়োগ হবে: ব্রাত্য বসু

 

নিউজ ডেস্ক: আগামী সপ্তাহ থেকেই উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের জন্য ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া শুরু করবে স্কুল সার্ভিস কমিশন। উচ্চ প্রাথমিকে নিয়োগ নিয়ে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে নতুন করে একাধিক মামলা দায়ের হয়েছে। সব মামলাগুলোর শুনানি হবে আগামী ২০ জুলাই। তবে নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে আর দেরি করতে চাই না এসএসসি। আজ ইন্টারভিউ সংক্রান্ত বড় ঘোষণা করলেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। 

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর উচ্চ প্রাথমিকের ইন্টারভিউয়ের তারিখ ঘোষিত হল। ১৯ জুলাই থেকে উচ্চ প্রাথমিকের ইন্টারভিউ শুরু হবে, চলবে পর্যন্ত। আজ বিকালে সাংবাদিক করে এই খবর জানালেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ১৯ জুলাই থেকে উচ্চ প্রাথমিকে ইন্টারভিউ শুরু হবে। কোভিড বিধিকে সম্পূর্ণ মান্যতা দিয়ে ইন্টারভিউ চলবে। আজ থেকেই কমিশনের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট http://www.westbengalssc.com/sscorg/wbssc/home/ তে বিস্তারিত তথ্য দিয়ে দেওয়া হবে। এর আগের প্রাপ্ত নম্বর এবং ইন্টারভিউয়ের প্রাপ্ত নম্বর যোগ করে মেধাতালিকা প্রকাশ করা হবে।  আদালতের নির্দেশ মেনেই এই নিয়োগ প্রক্রিয়া চলবে। মোট শূন্যপদের সংখ্যা ১৪,৩৩৯। আজ থেকেই ইনটিমেশন লেটার ডাউনলোড করতে পারবেন চাকরি প্রার্থীরা। পুরোপুরি স্বচ্ছ ভাবে নিয়োগ করা হবে।”


দুর্নীতি নিয়ে প্রশ্ন করলে শিক্ষামন্ত্রী বলেন,   ‘আমি বলতে পারি মহামান্য আদালতের রায় মেনে স্বচ্ছতা বজায় রেখে রাজ্যের ছেলে মেয়েদের যাতে চাকরি হয় তার চেষ্টা করা হবে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও এটা চান। আমরা এটা শুরু করছি। ভবিষ্যতে আর কোনও দুর্নীতির নিয়োগ হবে না। আমরা ধাপে ধাপে চেষ্টা করছি। আমার মনে হয় আগামী দিনে কোনও অভিযোগ থাকবে না। আমরা প্রত্যেক বছর প্রাথমিকের টেট ও এসএসসির পরীক্ষা নেব।’

চাকরিপ্রার্থীদের সুবিধার্থে ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি হেল্পলাইন নম্বরও চালু করার ঘোষণা করেন তিনি।

এর আগে এসএসসি-র চেয়ারম্যান শুভশঙ্কর সরকার বলেন, “দু’-এক দিনের মধ্যেই ইন্টারভিউয়ের প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে। সেই সঙ্গে ইন্টারভিউয়ের তালিকায় নাম ওঠেনি বলে যে-সব প্রার্থী অভিযোগ করছেন, তাঁদের অভিযোগপত্র নেওয়ার কাজও শুরু হয়েছে। এখনও পর্যন্ত প্রায় তিন হাজার অভিযোগপত্র জমা পড়েছে। ই-মেল করে বা ডাকযোগে তো বটেই, কমিশনের দফতরে এসেও অনেক প্রার্থী অভিযোগপত্র দিয়ে যাচ্ছেন। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী সব অভিযোগপত্রই খতিয়ে দেখা হবে।”