ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

মাধ্যমিক পাস যোগ্যতায় রাজ্যে ২৩১৬ গ্রামীণ ডাক ডাকসেবক (GDS) পদে নিয়োগ

 

নিউজ ডেস্ক: দিনে দিনে পোস্ট অফিসের কার্যের ব্যাপ্তি বাড়ছে। যত দিন যাচ্ছে, ততই পোস্ট অফিসে রেকারিং সেভিংস স্কিম, পার্সেল পৌঁছনোর সঙ্গে সঙ্গে আইপিপিবির (ইন্ডিয়ান পোস্টাল পেমেন্ট ব্যাঙ্ক) নানান কাজ যোগ হচ্ছে। এর মধ্যে বাড়িতে বসে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খোলা, অ্যাকাউন্ট থেকে  টাকা তোলা কিংবা জমা দেওয়া, অন্যের অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠানোর মতো কাজগুলি হচ্ছে গ্রামীণ ডাকসেবকের মাধ্যমে।

এর ফলে কর্মীর সংখ্যা বাড়াতে চলেছে ডাক বিভাগ। এবার ডাক বিভাগও রাজ্যের শিক্ষিত বেকারদের সামনে চাকরির বড় সুযোগ নিয়ে এল। শীঘ্রই পশ্চিমবঙ্গ সার্কেলে মোট ২ হাজার ৩৫৭ জন গ্রামীণ ডাকসেবক নিয়োগ করা হবে। এই সংক্রান্ত নতুন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ডাক বিভাগ। এর মধ্যে রাজ্যে ২ হাজার ৩১৬ জন, সিকিমে ৩০ জন এবং আন্দামান ও নিকোবরে ১১ জন নিয়োগ হবে। চাকরি পাওয়ার যোগ্যতামান মাধ্যমিক উত্তীর্ণ। 

অনলাইনে ডাক বিভাগের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে আবেদনপত্র জমা নেওয়া শুরু হয়ে গিয়েছে। বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, গ্রামীণ ডাকসেবকের অধীনে ব্রাঞ্চ পোস্টমাস্টার, অ্যাসিস্ট্যান্ট ব্রাঞ্চ পোস্টমাস্টার ও ডাকসেবক পদে মোট ২ হাজার ৩৫৭ জনকে দ্রুত নিয়োগ করা হবে। তার মধ্যে ৬০৭টি তফসিলি জাতি ও উপজাতি, ৬১টি বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন, ৪৯৬টি ওবিসি এবং ১৯২টি অর্থনৈতিকভাবে দুর্বল শ্রেণির জন্য সংরক্ষিত। জেনারেল ক্যাটেগরির শূন্যপদ ১ হাজার ১টি। আবেদনকারীর বয়স ২০২১ সালের ২০ জুলাই অনুযায়ী ১৮ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে হতে হবে। তবে ওবিসি, তফসিলি জাতি-উপজাতি ও বিশেষ চাহিদা সম্পন্নদের জন্য পর্যায়ক্রমে ৩ থেকে ১৫ বছর পর্যন্ত ছাড় রয়েছে।  

চাকরিপ্রার্থীদের কমপক্ষে ৬০ দিনের কম্পিউটার কোর্সের সার্টিফিকেট থাকা বাধ্যতামূলক। তবে কেউ মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক কিংবা উচ্চশিক্ষায় কম্পিউটার বিষয়ে পঠনপাঠন করলে সেক্ষেত্রে আলাদা করে প্রশিক্ষণের সার্টিফিকেট দেখাতে হবে না। শুধু কম্পিউটার নয়, জানতে হবে সাইকেল, বাইক কিংবা স্কুটার চালানোও। গত মঙ্গলবার, ২০ জুলাই থেকে অনলাইনে আবেদনপত্র জমা নেওয়া শুরু হয়েছে। চলবে ১৯ আগস্ট পর্যন্ত। মোট শূন্যপদের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ সার্কেলের বারাসত ডিভিশনে ৮৭, বীরভূম ডিভিশনে ১৫৮, মুর্শিদাবাদ ডিভিশনে ১৬০, বাঁকুড়া জেলায় ১৫৮, তমলুক ডিভিশনে ১০৫ এবং বর্ধমানে ১৪৭ জন নিয়োগ হবে।  

পশ্চিমবঙ্গ সার্কেলের কর্তাদের দাবি, এই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে গ্রামীণ এলাকায় ডাক বিভাগের পরিষেবায় গতি আসবে। বাড়িতে বসে ব্যাঙ্কিং পরিষেবাও সম্ভব হবে। বর্তমানে জীবনবিমা, গাড়ির বিমা, আধার কার্ডে মোবাইল নম্বর অন্তর্ভুক্তি, ডিজিটাল লাইফ সার্টিফিকেটের মতো একাধিক পরিষেবা চালু করেছে আইপিপিবি। সে সব প্রান্তিক গ্রাম পর্যন্ত পৌঁছে দেওয়ার জন্য ব্রাঞ্চ পোস্ট অফিসের শূন্যপদে কর্মী থাকা একান্ত প্রয়োজন। তাই দ্রুত নিয়োগ করতে চাইছে ডাক বিভাগ।