ব্রেকিং

6/recent/ticker-posts

Header Ads Widget

শুক্রবারই খুলতে পারে উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ইন্টারভিউ জট, ৩৫৪টি তালিকা প্রকাশ করবে SSC

 এসএসসি হাইকোর্ট

নিউজ ডেস্ক: দীর্ঘ সাত বছর পরেও উচ্চ প্রাথমিকের নিয়োগ করা সম্ভব হয়নি। ২০১৪ সালের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ। এরপরে নিয়োগে কেবলই জটিলতা। দুর্নীতির অভিযোগে একাধিক মামলা হওয়ায় কার্যত থমকে গিয়েছে নিয়োগ প্রক্রিয়া। তবে এর মধ্যে কিছুটা ভালো খবর আসতে চলেছে উচ্চ প্রাথমিকের চাকরি প্রার্থীদের জন্য। শুক্রবারেই একটি দিশা মিলতে পারে উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া শুরুর বিষয়ে। মঙ্গলবার বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যের এজলাসে ইন্টারভিউ তালিকা প্রকাশ সংক্রান্ত মামলাটি উত্থাপন করা হয় স্কুল সার্ভিস কমিশনের আইনজীবীর তরফে। বিচারপতি শুক্রবার সেই মামলাটি শুনানির নির্দেশ দিয়েছেন বলে কমিশন ও আদালত সূত্রে জানা গেছে।  

 এর আগে ১০ মে ইন্টারভিউ তালিকা প্রকাশ করে ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া শুরু করার নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যের। যদিও করোনার দোহাই দিয়ে ওই সময়ের মধ্যে ইন্টারভিউ তালিকা প্রকাশ করতে পারেনি এসএসসি। চাকরি প্রার্থীরা আদালত অবমাননার অভিযোগে কমিশনকে অভিযুক্ত করার হুঁশিয়ারি দিলে কমিশন আদালতে গিয়ে সময়সীমা বাড়ানোর আবেদন জানায়। ১৭ই মে মামলাটি ওঠে বিচারপতি অরিন্দম সিনহার এজলাসে। বিচারপতি অরিন্দম সিনহা জানিয়ে দেন, এই মামলাটি বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্যের এজলাসে নিয়ে যেতে। মূল মামলাটির রায় যেহেতু মৌসুমী ভট্টাচার্য দিয়েছিলেন, তাই তাঁর এজলাসেই মামলাটি তোলার নির্দেশ দেন বিচারপতি। সেইমতো এদিন পদক্ষেপ করেছে কমিশন।

করোনা আবহে ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া অনলাইনে চালাতে চেয়েছিল কমিশন। তাদের ইন্টারভিউ তালিকাও তৈরি বলে জানা যাচ্ছে। তবে প্রযুক্তিগতভাবে অনলাইন ইন্টারভিউ নেওয়া সম্ভব হবে কিনা তানিয়ে ভাবছেন আধিকারিকরা। নির্বাচন এবং কার্যত লকডাউন ইন্টারভিউ শুরুর প্রক্রিয়াকে ইতিমধ্যেই পিছিয়ে দিয়েছে, তাই নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করার চূড়ান্ত সময়সীমা বাড়ানোর জন্য আদালতের কাছে কমিশন আবেদন জানাতে পারে বলে খবর। ইন্টারভিউতে ডাক পাবেন ২০ হাজারেরও বেশি প্রার্থী। এজন্য কমবেশি ৩৫৪টি তালিকা প্রকাশ করতে হবে। সেটার স্ক্রুটিনির সময় বেঁধে দেওয়া সম্ভব হয়নি, আদালতকে জানাবে কমিশন। 

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, হাই কোর্টের (Calcutta HC)  নির্দেশ ছিল, ইন্টারভিউয়ের তালিকা প্রকাশ করতে হবে ১০ মে’র মধ্যে। এরপর আট সপ্তাহের মধ্যে সম্পূর্ণ মেধাতালিকা প্রকাশ করে গোটা নিয়োগ প্রক্রিয়া ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে সম্পূর্ণ করতে বলা হয়েছে কমিশনকে। যদিও স্কুল সার্ভিস কমিশন ইন্টারভিউয়ের তালিকা বের করতে পারেনি। এক্ষেত্রে করোনাকে ঢাল করছে কমিশন।