Breaking News
Home / পশ্চিমবঙ্গ / শিক্ষক নিয়োগের বিধি হল শিথিল, প্রধান শিক্ষকের নিয়োগের ক্ষেত্রেও আসতে পারে ছাড়

শিক্ষক নিয়োগের বিধি হল শিথিল, প্রধান শিক্ষকের নিয়োগের ক্ষেত্রেও আসতে পারে ছাড়

নিউজ ডেস্ক: দীর্ঘ দিনের দাবি মেনে অবশেষে এল বহু প্রতীক্ষিত ছাড়। কেন্দ্রীয় নিয়ামক সংস্থা এনসিটিই ২০১১ সালের বিধি সংশোধন করে নতুন বিজ্ঞপ্তিটি প্রকাশ করল। এর ফলে আপার প্রাইমারির (উচ্চ প্রাথমিক) শিক্ষক হতে গেলে স্নাতকস্তরে বা গ্র্যাজুয়েশনে আর ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর পাওয়া বাধ্যতামূলক থাকল না। যারা ২০১১ সালের ২৯ জুলাইয়ের আগে বিএড কোর্সে নাম নথিভুক্ত করেছেন তাঁদের স্নাতকস্তরে ৫০ শতাংশ নম্বর না থাকলেও চলবে। তবে যাঁরা এর পরে বিএডে নথিভুক্ত হয়েছেন, তাঁদের ক্ষেত্রে স্নাতকে ৫০ শতাংশ নম্বর না থাকলেও স্নাতকোত্তরে ৫০ শতাংশ থাকতে হবে। তবে দুটি ক্ষেত্রেই বিএডে ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর পাওয়ার আবশ্যিক শর্তটি অপরিবর্তিত থাকছে। সুপ্রিম কোর্টে হওয়া মামলার প্রেক্ষিতেই এই সংশোধন বলে জানা গিয়েছে।

নিয়ামক সংস্থা এই ছাড় দেওয়ায় ফলে বিরাট সংখ্যক প্রার্থী এবার উচ্চ প্রাথমিকের শিক্ষক পদের জন্য আবেদন করতে পারবেন। হাজার হাজার প্রার্থী লক্ষাধিক টাকা খরচ করে বিএড করে বসেছিলেন। কিন্তু এসএসসিতে আবেদন করতে পারছিলেন না, তাঁদের সামনেও এবার দরজা খুলে যাবে।

এবার প্রধান শিক্ষকের নিয়োগের ক্ষেত্রেও ছাড় আসতে চলেছে বলে মনে করছেন অনেকে। রাজ্য স্কুল সার্ভিস কমিশন প্রধান শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতায় স্নাতকোত্তরে ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর আবশ্যিক করেছিল। তা নিয়ে অবশ্য মামলা হয়। তাতে মামলাকারীরা জিতেও যান। এক শিক্ষা আধিকারিক বলেন, কমিশনের ধারণা ছিল, শিক্ষকদেরই যেখানে গ্র্যাজুয়েশনে ন্যূনতম ৫০ শতাংশ আবশ্যিক করা হয়েছে, সেখানে প্রধান শিক্ষকদের ক্ষেত্রে পোস্ট গ্র্যাজুয়েশনে ন্যূনতম ৫০ শতাংশ নম্বর আবশ্যিক করা নীতিগতভাবে সঠিক। যদিও আগে স্নাতকোত্তরে এত নম্বরই উঠত না। সেটা কমিশন ভাবেনি। ফলে বহু অভিজ্ঞ শিক্ষক বঞ্চিত হচ্ছিলেন। এবার উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের বিধি শিথিল হওয়ায় উচ্চ প্রাথমিকে প্রধান শিক্ষক নিয়োগেও ছাড় আসতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে।

Check Also

রাজ্যের আবেদন গৃহীত, ডিএ মামলার পরবর্তী শুনানি ৮ জানুয়ারি!

নিউজ ডেস্ক: রাজ্যে প্রবল বতন বঞ্চনার স্বীকার সরকারি কর্মচারীরা। ডিএ পাওয়ার নিরিখে কেন্দ্রের থেকে অনেকটাই …

দেশের মধ্যে বাংলা অন্যতম দুর্নীতি মুক্ত রাজ্য: মুখ্যমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক: এর আগে সারদা-নারদা কাণ্ড নিয়ে উত্তাল হয়েছে রাজ্য। শাসক দলের বহু নেতা-মন্ত্রীর নাম …

চার হাজার শূন্যপদে আবেদন জমা পড়ল সাড়ে সাত লক্ষ, ক্লার্কশিপের পরীক্ষা জানুয়ারিতেই

নিউজ ডেস্ক: চলতি বছরের ২২ ফেব্রুয়রি ক্লার্কশিপ পরীক্ষার বিজ্ঞাপন প্রকাশ করেছিল পিএসসি। আবেদন জমা দেওয়ার …

যুদ্ধে জিততে গেলে কখনো কখনো রণকৌশল পরিবর্তন করতে হয়, বলছেন পার্শ্ব শিক্ষকেরা

নিউজ ডেস্ক: ন্যায্য বেতন এবং নির্দিষ্ট বেতন কাঠামোর দাবিতে সল্টলেকের বিকাশ ভবনের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ …

TGT বেতনক্রম ও CAS সুবিধার দাবিতে সম্পন্ন হল BGTA হাওড়া জেলা কমিটির সাধারণ সভা

৬ই ডিসেম্বর, ২০১৯, দাশনগর: হাওড়া জেলার সরকার পোষিত বিদ্যালয়ের গ্রাজুয়েট শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ সর্বভারতীয় স্তরে প্রচলিত টিজিটি …

ফের পিছিয়ে গেল এসএসসির আপার প্রাইমারি মামলার শুনানি

নিউজ ডেস্ক: পিছিয়ে গেল শুনানি! আজ কলকাতা হাকোর্টে আপার প্রাইমারীর শিক্ষক নিয়োগ মামলার শুনানির ডেট …

পার্শ্ব শিক্ষকরা ভয়কে জয় করেছে, নির্দিষ্ট বেতন কাঠামো ঘোষণা না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে: ভগীরথ ঘোষ

নিউজ ডেস্ক: ন্যায্য বেতন এবং নির্দিষ্ট বেতন কাঠামোর দাবিতে সল্টলেকের বিকাশ ভবনের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.