Breaking News
Home / পলিটিক্স / রোহিঙ্গা মুসলিমদের আশ্রয় দিয়ে ভোটব্যাঙ্ক হিসেবে ব্যবহার করতে NRC বিরোধিতা করছে তৃণমূল: কৈলাশ বিজয়বর্গীয়

রোহিঙ্গা মুসলিমদের আশ্রয় দিয়ে ভোটব্যাঙ্ক হিসেবে ব্যবহার করতে NRC বিরোধিতা করছে তৃণমূল: কৈলাশ বিজয়বর্গীয়

বিশ্ব বার্তা নিউজ পোর্টাল: দিন কয়েক আগেই অসমে জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এনআরসির তীব্র বিরোধিতা করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। এই পরিস্থিতিতে বুধবার বিজেপি নেতা কৈলাশ বিজয়বর্গীয় অভিযোগ করলেন, রোহিঙ্গা মুসলিমদের আশ্রয় দিয়ে তাঁদের ভোটব্যাঙ্ক হিসেবে ব্যবহার এবং বিজেপি কর্মীদের মারধর করার জন্যই এনআরসির বিরোধিতা করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

* গেরুয়া শিবির পর্যবেক্ষকের কিছু প্রশ্ন:

1. কেন, অনুপ্রবেশকারীদের তাড়াতে করা এনআরসির বিরোধিতা করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়?
2. তাঁর বিরোধিতার কারণ কী?
3. কারণটা কি ভোটব্যাঙ্ক রাজনীতি?
4. বাংলাদেশী এবং রোহিঙ্গা মুসলিমদের আশ্রয় দিতে চাইছে কেন তৃণমূল কংগ্রেস সরকার?

শ্যামবাজারের একটি সভায় কৈলাশ বিজয়বর্গীয় আরও বলেন, “তাদের আশ্রয় দেওয়া হচ্ছে, যাতে তাদের ভোটব্যাঙ্ক হিসেবেও ব্যবহার করা যায়, আবার রাজ্যের বিজেপি কর্মীদের মারধর এবং হত্যা করা যায়”। এনআরসির মাধ্যমে নিজের দেশেই প্রকৃত ভারতীয় নাগরিকদের উদ্বাস্তু বানানো হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে তৃণমূল কংগ্রেস, পাশাপাশি এএনআরসির বিরোধিতায় রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদের ডাক দিয়েছে জোড়াফুল শিবির। রবিবার বিজেপি নেতা অর্জুন সিং-এর ওপর হামলার ঘটনার প্রসঙ্গ তুলে বিজেপি নেতা বলেন, “তাঁকে হত্যা করার ছক কষেছিল তৃণমূল কংগ্রেস। তবে তারা ব্যর্থ হয়েছে। আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সতর্ক করে দিতে চাই যে, যদি অর্জুন সিংকে হত্যা করা হত, তাহলে তাঁর সরকার শেষ হয়ে যেত”। তাহলে কি সরাসরি হুমকির বার্তা পাঠাচ্ছে গেরুয়া দল?

এর আগে অর্জুন সিং দাবি করেন যে, তাঁর লোকসভা কেন্দ্রের একটি জায়গায় “শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ” করার সময়, তাঁর ওপর আঘাত করেন ব্যারাকপুরের পুলিশ কমিশমার মনোজ বার্মা, ফলে মাথায় ক্ষত সৃষ্টি হয় তাঁর। যদিও পুলিশের তরফে দাবি করা হয়, নিজের দলের কর্মীদের ইট ছোঁড়াছুঁড়িতেই আহত হয়েছেন অর্জুন সিং। রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে, তাদের দলীয় নেতা, কর্মীদের ওপর হামলার অভিযোগ তুলে তিনদিন প্রতিবাদ বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে রাজ্য বিজেপি। কৈলাশ বিজয়বর্গীয়ের অভিযোগ, নিজেদের “রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ” করতে এবং বিরোধীদের মুখ বন্ধ করতে পুলিশ ও প্রশাসনকে ব্যবহার করছে তৃণমূল কংগ্রেস।

কৈলাশ বিজয়বর্গীয় বলেন, “বিজেপি যেদিন ক্ষমতায় আসবে, সেদিন শুধুমাত্র আমাদের কথাই শুনতে হবে পুলিশকে”।

বাংলাতে গেরুয়া দলের সরকার গঠন হলে তারা কি ‘জোর যার মুল্লুক তার’ বা প্রতিশোধের রাজনীতি শুরু করবে?? এটাই এখন দেখবার বিষয়।।।

Check Also

প্রশ্ন ফাঁস করলে বা মোবাইল নিয়ে পরীক্ষাকেন্দ্রে ধরা পড়লে আজীবন বহিষ্কার পরীক্ষার্থীকে!

নিউজ ডেস্ক: প্রশ্ন ফাঁস নিয়ে বারে বারে অস্বস্তিতে পড়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। আগামী ১২ মার্চ থেকে …

ইসরোতে চাকরির বড় সুযোগ, উচ্চ মাধ্যমিক পাস থাকলেই করা যাবে আবেদন

নিউজ ডেস্ক: বড় শূন্যপদ পূরণ করতে চলেছে ভারতীয় মহাকাশ বিজ্ঞানের পীঠস্থান দ্য ইন্ডিয়ান স্পেস রিসার্চ …

হেলিয়াগাছী অঃপ্রাঃ বিদ্যালয়ে বিদ্যুতের ব্যবহার ও সচেতনা নিয়ে সম্পন্ন হল বিশেষ শিবির

নিউজ ডেস্ক: আজ আমার বিদ্যালয় দঃ ২৪ পরগনার হেলিয়াগাছী অঃপ্রাঃ তে এক বিশেষ শিবির আয়োজন …

ভারতীয় ডাক বিভাগে গ্রামীণ ডাক সেবক (জিডিএস) পদে ২০২১টি শূন্যপদে নিয়োগ

নিউজ ডেস্ক: ভারতীয় ডাক বিভাগের পশ্চিমবঙ্গ ডাক সার্কেলে গ্রামীণ ডাক সেবক-শাখা পোস্ট মাস্টার (বিপিএম), সহকারী …

এসএসকে-এমএসকে শিক্ষাকেন্দ্রগুলি নিয়ে সরকারের বিশেষ কোনও পরিকল্পনা নেই: শিক্ষামন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক: রাজ্যের শিশু ও মাধ্যমিক শিক্ষাকেন্দ্রগুলি (এসএসকে-এমএসকে) নিয়ে সরকারের এই মুহূর্তে বিশেষ কোনও পরিকল্পনা …

বড় ভাঙন গেরুয়া শিবিরে, বিজেপির মণ্ডল সভাপতির যোগদান শাসকদলে

নিউজ ডেস্ক: আবার বড়সড় ভাঙন বিজেপিতে। পুরুলিয়ার ঝালদা-১ ব্লকে গেরুয়া শিবিরে ভাঙন ধরাল তৃণমূল। রবিবার …

বর্ধিত বেতনের বিজ্ঞপ্তিতে অসঙ্গতি, আর্থিক ক্ষতির আশঙ্কায় প্রাথমিক শিক্ষকরা

নিউজ ডেস্ক: গত ১৩ ডিসেম্বর শিক্ষকদের বর্ধিত বেতনের বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছিল। অপশন ফর্ম পূরণ করার …