Breaking News
Home / পলিটিক্স / রাজ্য সরকার কথা রাখলেও, কথা রাখেনি কেন্দ্র : ক্ষুব্ধ শহিদদের পরিবার

রাজ্য সরকার কথা রাখলেও, কথা রাখেনি কেন্দ্র : ক্ষুব্ধ শহিদদের পরিবার

বিশ্ব বার্তা নিউজ পোর্টাল: কাশ্মীরের পুলওয়ামার সেই ভয়ঙ্কর জঙ্গী হামলার পর কেটে গিয়েছে প্রায় দেড় মাস। গত ১৪ ফেব্রুয়ারি সিআরপিএফ জওয়ানদের গাড়িতে হওয়া বিস্ফোরণে কেঁপে গিয়েছিল গোটা দেশ। অনেক মা তার ছেলেকে হারিয়েছিলেন, কেউ হারিয়েছিলেন স্বামী, কেউ বা হারিয়েছিল বাবাকে। বর্তমানে সেই স্মৃতি অনেকটাই ফিকে হয়েছে। আবার চলে এসেছে আর একটি ভোট, আর আমরা ভুলে গিয়েছি শহীদের পরিবারগুলোকে! কী অবস্থায় দিন কাটছে সেই নিরীহ পরিবারগুলির? খোঁজ নিয়ে যেটা জানাগেছে তা সত্যিই দুঃখের। প্রথম দিকে সরকারের তরফ থেকে তৎপরতা থাকলেও, এখন আর কেউ খোঁজ নেয় না! বিশেষত কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে। যাদেরই অধীনস্থ সংস্থা আরপিএফ-এ কর্মরত ছিলেন দুই শহিদ শহীদ জওয়ান বাবলু সাঁতরা ও সুদীপ বিশ্বাস।

সাত বছরেই বাবাকে হারিয়েছে পিয়াল। ঠিক ঠাক বুঝতেও পারেনি কি ক্ষতি হয়েগিয়েছিল তার। মাঝেমধ্যেই মায়ের কাছে জানতে চায়, “বাবা কোথায়? বাবা কবে আসবে?” কি উত্তর দেবেন তা খুঁজে পান না মা মিতা। বাবলুর ভাই কল্যাণ সাঁতরার বললেন, “কোনও কিছুতেই যে আমাদের পরিবারের অভাবপূরণ করা সম্ভব নয়। তবু বউদি আর বাচ্চাটার ভবিষ্যতের জন্য চেষ্টা করছি সরকারি ক্ষতিপূরণগুলো পাওয়ার। রাজ্য সরকারের টাকা পেয়ে গিয়েছি। কিন্তু কেন্দ্র সরকারের কোনও খবর নেই।”

একই উত্তর আসে নদিয়া থেকেও। সুদীপ বিশ্বাসের বউদি সুলেখা বলছিলেন, “শুধু টাকাই নয়। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ননদ (সুদীপের বোন) ঝুম্পার চাকরির জন্য কাগজপত্রও নিয়ে গিয়েছে। সুদীপের বিয়ে হয়নি। তাই শ্বশুরমশাই অনুরোধ করেছিলেন আমার ছেলে সঞ্জু যেহেতু ওর মুখাগ্নি করেছে, তাই ওকে কেন্দ্র সরকারের চাকরি দিতে। কিন্তু ওরা বলে দিয়েছে তা সম্ভব নয়।” কিন্তু কেন এখনও মেলেনি কেন্দ্রীয় সরকারের ক্ষতিপূরণ? কল্যাণ সাঁতরা ও সুলেখা বিশ্বাস দু’জনই বলছিলেন, “যেহেতু লোকসভা ভোট। তাই হয়তো সব ধামাচাপা পড়ে গিয়েছে।”

বিরোধীরা বারবার প্রশ্ন তোলে বিজেপির রাষ্ট্র বাদ সম্পর্কে। তারা বলে বিজেপি সেনার সাফল্যকে নিজেদের ভোট বাক্সের জন্য ব্যাবহার করে। বিজেপিও রাষ্ট্র বাদ নিয়ে বিরোধীদের আক্রমণ করতে ছাড়ে না। এই অবস্থায় শাহীদ সেনা বাহিনীর দেওয়া প্রতিশ্রুতি মত সরকারের সাহার্য্য না পাওয়া সত্যিই বেদনা দায়ক।

Check Also

আদৌ কি এ বছরের মধ্যে সম্পন্ন হবে এসএসসির নিয়োগ প্রক্রিয়া? চিন্তায় হবু শিক্ষকরা!

নিউজ ডেস্ক: করোনার জেরে গোটা বিশ্বেরই অর্থনীতির বেহাল দশা। দেশের আর্থিক অবস্থাও ভালো নয়। দেশজুড়ে …

প্রত্যেক দেশবাসীকে অন্তত একশো টাকা করে অনুদান হিসেবে দান করার আর্জি জানালেন আশা ভোঁসলে

নিউজ ডেস্ক: করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সিনেজগতের নামজাদা তারকারা ইতিমধ্যেই তাদের সামর্থ অনুযায়ী অর্থের অনুদান করেছেন …

লকডাউন পরিস্থিতিতে অসহায় দুঃস্থ পরিবারের হাতে খাদ্যদ্রব্য সামগ্রী তুলে দিল হেল্প কেয়ার সোসাইটি

নিউজ ডেস্ক: লকডাউন পরিস্থিতিতে অসহায় দুঃস্থ পরিবারের হাতে খাদ্যদ্রব্য সামগ্রী তুলে দিল নদীয়া জেলার হাঁসখালী …

লকডাউনের ফলে চরম বিপাকে গৃহশিক্ষকরা, মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন পেশ!

নিউজ ডেস্ক: সাম্প্রতিক মহামারী করোনা ভাইরাস সংক্রমনে বিপর্যস্ত দেশ থেকে বিদেশের মানুষ ও অর্থনীতি। প্রভাব …

তাবলিগ জামাত সদস্যের বিরুদ্ধে দুর্ব্যবহার ও থুথু ছেটানোর অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা: এইমস কর্তৃপক্ষ

নিউজ ডেস্ক: দিল্লীর নিজামুদ্দিনের ঘটনার পর অল্পবয়সী এক তাবলিগ জামাত সদস্য রায়পুর এইমসে ভর্তি হয়েছিলেন। …

লকডাউনের জেরে আয় তলানিতে, ছাঁটাই হবে কি সরকারি কর্মীদের বেতন? উঠছে প্রশ্ন!

নিউজ ডেস্ক: করোনা সঙ্কটের জেরে দেশে চলছে লকডাউন। এভাবে চললে দেশের অর্থনীতির যে চরম ধাক্কা …

মুখ্যমন্ত্রীর আপদকালীন রিলিফ ফান্ডে‌ ১,০০,০০০ টাকা অনুদান বর্ধমান ফুডিস ক্লাবের

বর্ধমান: প্রায় ২৫০০ এরও বেশি পরিবারকে রেশন বিলি করা, প্রতিদিন প্রায় ১০০০ করে রুটি বিতরণ …