Breaking News
Home / প্রযুক্তি / ভারতীয় ছাত্রের রোবট তৈরি: পরিষ্কার রাখবে সমুদ্র, সহায়তা করবে কৃষিতে

ভারতীয় ছাত্রের রোবট তৈরি: পরিষ্কার রাখবে সমুদ্র, সহায়তা করবে কৃষিতে

বিশ্ব বার্তা নিউজ পোর্টাল: আবুধাবিতে এক ভারতীয় শিক্ষার্থী সামুদ্রিক জীবন রক্ষা করতে এবং খামারগুলিতে মানুষের শ্রমকে কমিয়ে আনার জন্য দুটি রোবট তৈরি করেছেন, এটি এমন এক উদ্ভাবন যা তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের বৃহত্তর স্কেলে বাস্তবায়নের আশা প্রকাশ করেছেন।

খালিজ টাইমসের রিপোর্ট অনুসারে, জিইএমএস ইউনাইটেড ইন্ডিয়ান স্কুলের ছাত্র সাইনাথ মানিকান্দন মেরিন রোবট ক্লিনার (এমবিট ক্লিনার) তৈরি করেছেন যা সামুদ্রিক পরিবেশ এবং কৃষি রোবট (এগ্রিবিট) যা ইউএই’র মতো গরম দেশে কাজ করে কৃষকদের শ্রমকে কমিয়ে আনতে সহায়তা করবে।

সাইনাথ মানিকান্দন বলেন “এমবিট একটি প্রোটোটাইপ রোবট যা জলের পৃষ্ঠতল থেকে ভাসমান বর্জ্য অপসারণ করতে পারে। এটি মূলত একটি বোটের মত, যা দূরবর্তীভাবে একটি রেডিও কন্ট্রোলের মাধ্যমে পরিচালিত হতে পারে। এটি দুটি মোটর দিয়ে চালায় যা জলে নৌকার মত এগোতে সহায়তা করে”।

তিনি আরও বলেন যে “পপসিকল লাঠি একটি চাকার সঙ্গে যুক্ত থাকে এবং তারপর তৃতীয় মোটরের সাহার্য্য নিয়ে জলের পৃষ্ঠতল থেকে বর্জ্য সংগ্রহ করা হয়। তারপর সেটা বর্জ্য স্টোরেজ ঝুড়ির মধ্যে জমা করা হয়। ব্যাটারির পরিবর্তে সৌর প্যানেলগুলিও ব্যবহার করা যেতে পারে। যদিও এই প্রকল্পটি যথার্থভাবে জল বিশুদ্ধতা পুনরুদ্ধার করতে পারে, তবুও এটি একটি ভাল ইকোসিস্টেম তৈরির দিকে এগিয়ে যাওয়ার প্রাথমিক পদক্ষেপ হতে পারে। এর সাহায্য নিয়ে আমরা আমাদের সামুদ্রিক প্রজাতি এবং পরিবেশ সংরক্ষণ করার চেষ্টা করতে পারি”।

এগ্রিবোটটি সৌর প্যানেল দ্বারা চালিত, এটি খামারগুলিতে বীজ রোপণের প্রক্রিয়াটিকে সহায়তা ও নিয়ন্ত্রণের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।

রিপোর্ট অনুযায়ী “এগ্রিবোটটি কৃষিতে প্রাথমিক ভূমিকা যেমন মাটি চাষ, বীজ বপন এবং মাটির সাথে বীজ আচ্ছাদিত করা ইত্যাদিতে সাহার্য্য করতে পারে। রোবটটি সয়ংক্রিয় এবং প্রয়োজন অনুসারে চাষ পদ্ধতির ঐচ্ছিক স্যুইচিংয়ের সুবিধা প্রদান করে”।

সাইনাথ মানিকন্দন বিভিন্ন ইকো-ফ্রেন্ডলি প্রোগ্রামের সঙ্গেও যুক্ত।
তিনি “ড্রপ ইট ইউথ” তুনজা ইকো জেনারেশন এর রাষ্ট্রদূত এবং এমিরেটস এনভায়রনমেন্টাল গ্রুপের সক্রিয় সদস্য।

তিনি বলেন, “আমি নিজের পিইপিসি প্রচারণা চালু করেছি। যার মাধ্যমে আমি কাগজ, ইলেকট্রনিক বর্জ্য, প্লাস্টিক এবং পুনর্ব্যবহারযোগ্য ক্যানগুলি সংগ্রহ করি”।

মানিকন্দন আরো বলেন “রিসাইক্লিং পরিবেশকে অনেক উপায়ে সহায়তা করে। এটি আমাদের সম্পদ সংরক্ষণ করে, ল্যান্ডফিলের স্থান সংরক্ষণ করে, গ্রীনহাউজ গ্যাসকে হ্রাস করে এবং জল ও শক্তি সংরক্ষণ করে।”

Check Also

সাজানো ভণ্ডামি, পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্রের সঙ্গে আপনি বর্বরতা করেছেন, মুখ্যমন্ত্রীকে মুকুল রায়

বেশ কিছুদিন ধরেই রাজ্যের শাসকদল জোর দিয়েছে জন সংযোগ কর্মসূচি। পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে দিদিকে বলো কর্মসূচি। এই কর্মসূচি উপলক্ষেই গত বুধবার দিঘার দত্তপুরে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। সেখানে দীঘর উন্নয়নের জন্য বেশ কিছু প্রকল্প ঘোষণা করেন। এরপর বাড়ি বাড়ি ঢুকে সাধারণ মানুষের অভাব-অভিযোগ শোনেন তিনি। যেতে যেতেই রাস্তার পাশে একটি চায়ের দোকানে ঢুকে নিজে হাতে চা বানান মুখ্যমন্ত্রী। এরপর তা পরিবেশনও করেন। এই ঘটনাকে জীবনের ছোটো ছোটো আনন্দদায়ক মুহূর্ত হিসাবেই অভিহিত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পদোন্নতির মাধ্যমে শিক্ষক নেওয়া হলে, আদৌ কি যোগ্য প্রার্থীরা প্রধান শিক্ষক হতে পারবেন? উঠছে প্রশ্ন!

এসএসসির মাধ্যমে সহ শিক্ষক নিয়োগে বারে বারে উঠেছে অভিযোগ। কখনো বা এনসিটির রুলস না মানা আবার কখনো বা যোগ্য প্রার্থীকে বাদ দিয়ে অযোগ্য প্রার্থীকে মেধা তালিকায় জায়গা করে দেওয়া। শুধুই যে সহ শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে এমন অভিযোগ আছে তা নয়, প্রধান শিক্ষক নিয়োগ নিয়েও উঠেছে একাধিক অভিযোগ। এসএসসির বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে আদালতে মামলা দায়ের হয়েছেও প্রচুর। ফলে রাজ্যের স্কুল গুলিতে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ বারেবারে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত: বিজেপির শরিক নেতা

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত

দীঘায় চলবে সি প্লেন, তৈরি হবে পুরীর মত জগন্নাথ দেবের মন্দির: মমতা ব্যানার্জী

দীঘা

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

কলেজের অতিথি অধ্যাপকদের ধামাকাদার বেতন বৃদ্ধি

কলেজের অতিথি অধ্যাপকদের ধামাকাদার বেতন বৃদ্ধি