Breaking News
Home / পলিটিক্স / প্রথম তিন দফায় নূন্যতম 60 টি জেতা আসন হারাতে চলেছে বিজেপি: দেখুন রাজ্যওয়ারী ফল কেমন হতে পারে!

প্রথম তিন দফায় নূন্যতম 60 টি জেতা আসন হারাতে চলেছে বিজেপি: দেখুন রাজ্যওয়ারী ফল কেমন হতে পারে!

বিশ্ব বার্তা নিউজ পোর্টাল: তৃতীয় দফার ভোট নেওয়া গতকাল শেষ হয়েছে। এখন প্রশ্ন হল প্রথম তিন দফাতে বিজেপি কেমন আসন পেতে পারে? তারা কি গত বারের মত ফল করতে পারবে? বিরোধীরাই বা কেমন ফল করবে? এই নিয়ে বিশিষ্ট সাংবাদিক পুন্য প্রসূন বাজপেয়ী একটি বিষশ্লেষণাত্মক আলোচনা করেছেন। ভালো ভাবে ভোট বিশ্লেষণ করলেই দেখা যাবে, বেশির ভাগ রাজ্যেই ভোট দানের হার গত লোকসভা ভোটের থেকে কম। এটা বিজেপির জন্য বিপদের ঘন্টা বলেই তিনি মনে করেন।

তৃতীয় দফায় যে 117 টি লোকসভা আসনে ভোট হল, 2014 সালের লোকসভা ভোট অনুসারে এনডিএ 67 টি, ইউপিএ 26 টি, বামদল 10 টি, বিজেডি 6 টি, সপা-বসপা 3 টি, তৃণমূল 1 টি, এআইইউডিএফ 2 টি, আইএনডি 1 টি, যেকেপিডিপি 1 টি আসনে জিতেছিল।

তৃতীয় দফাতে যা ভোট হয়েছে তাতে বিজেপি কোথায় জিততে পারে, কোথায় হারতে পারে, তা রাজ্য অনুযায়ী বিশ্লেষণ করেন বিশিষ্ট সাংবাদিক বাজপেয়ী।

উত্তরপ্রদেশ: তৃতীয় দফার যে 10 টি লোকসভা রামপুর, মোরাদাবাদ, বারেলি, সম্বল, পিলিভিট, ইটা, আমলা, মেনপুরি, বাদাউন ও ফিরোজাবাদ ভোট হয়েছে তাতে বারেলি ছাড়া বাকি আসন গুলোতে বিজেপি হারতে পারে। তবে আমলা ও ইটাতে যদি হিন্দু-মুসলিম ব্যাপারটি চলে আসে তবে বিজেপি জিততে পারে। যাদবদের ভোট ভাগ হয়ে গেলে ফিরোজাবাদ আসনটি বিজেপির দখলে যেতে পারে।

বিহার: বিহারে তৃতীয় দফায় 5 টি লোকসভা আসনে ভোট হয়েছে। খাগাড়িয়া, মাধেপুরা, সুপল, আরারিয়া এবং জঞ্জারপুর। 5 টির মধ্যে 4 টি মহাজোট পেতে পারে। একমাত্র বাঁকা লোকসভাতে যেডিইউ লড়াই দিতে পারে।

পশ্চিমবঙ্গ: পশ্চিমবঙ্গে 5 টি লোকসভার মধ্যে একটিও বিজেপির দখলে ছিল না। বালুরঘাটে তৃণমূল বিজেপি জোর ফাইট। মালদা উত্তরে ত্রিমুখী লড়াইয়ে তৃণমূল বেরিয়ে যেতে পারে।মালদা দক্ষিণে তৃণমূল ও কংগ্রেসের মধ্যে ক্লোজ ফাইট হচ্ছে। মুর্শিদাবাদের দুটি আসন, জঙ্গিপুর ও মুর্শিদাবাদ তৃণমূলের দখলে যেতে পারে।

কেরল: তৃতীয় দফার মাত্র একটি আসনে ভোট হওয়া পাথনামচিন্তা লোকসভা আসনে কংগ্রেস জিততে পারে।

গোয়া: গোয়ার দুটি আসনের মধ্যে সাউথ গোয়া কংগ্রেস জিতবে। নর্থ গোয়াতে বিজেপি এবং কংগ্রেসের জোর লড়াই।

কর্ণাটক: কর্ণাটকে তৃতীয় দফার 10 টি লোকসভা আসনের মধ্যে 7 টি বিজেপি পেতে পারে। জেডিএস ও কংগ্রেসের মধ্যে জোট হওয়ায় 3 টি আসন বিজেপি হারতে চলেছে।

মহারাষ্ট্র: তৃতীয় দফায় মহারাষ্ট্রে 14 টি লোকসভা আসনে ভোট হয়েছে। ভোটে অংশগ্রহণ না করলেও রাজ ঠাকরে এনডিএকে ক্ষতি করতে পারে। মহারাষ্ট্রে তৃতীয় দফায় কংগ্রেসের ফল ভালো হতে পারে। গতবারের জেতা 6 টি আসন বিজেপি পেয়েছিল, সেখান থেকে দুটি হারাতে পারে। তৃতীয় দফার 14 টি সিটের মধ্যে ইউপিএ জোট 8 টি আসনে জিততে পারে।

ছত্রিশগড়: ছত্রিশগড়ের ফল গতবারের উল্টো হতে পারে। তৃতীয় দফার 7 টি আসনের মধ্যে 6 টি আসনে বিজেপি গতবার জিতেছিল। এবার 2 টি আসন বিজেপি জিততে পারে। কংগ্রেস পেতে পারে 5 টি।

উড়িষ্যা: তৃতীয় দফার উড়িষ্যায় 6 টি লোকসভায় ভোট হয়েছে। বিজেডির আসন 1 টি কমে 5 হতে পারে। বিজেপির 1 টি আসন লাভ হতে পারে।

আসাম: আসামে তৃতীয় দফায় 4 টি আসনে ভোট হয়েছে। 4 টির মধ্যে 1 টি বিজেপির দখলে ছিল। এবারও 1 টি আসন বিজেপি ধরে রাখবে।

গুজরাট: তৃতীয় দফায় গুজরাটের 26 টি লোকসভা আসনেই ভোট হয়েছে। গুজরাটের গ্রামীণ এলাকায় বিজেপি খারাপ হতে পারে। 26 টি আসনের মধ্যে বিজেপি 19 টি আসন বিজেপি পেতে পারে, বাকি 7 টি আসনে কংগ্রেসের দখলে যেতে পারে।

জম্মু-কাশ্মীর: জম্মু-কাশ্মীরের 1 টি আসন পিডিপি হারতে চলেছে। ওমর আবুল্লার এনসি সেখানে জিততে চলেছে।

সুতরাং দেখা যাচ্ছে গুজটারে 7 টি, উত্তরপ্রদেশে 6 টি, ছত্রিশগড়ে 5 থেকে 6 টি, বিহারে 1 টি, কর্ণাটকে 4 থেকে 5 টি, মহারাষ্ট্রে 2 থেকে 3 টি, গোয়াতে 1 থেকে 2 টি আসন বিজেপি গতবারের তুলনায় হারাতে পারে। সুতরাং গতবারের জেতা 67 টি আসনের মধ্যে 29 থেকে 30 টি আসন বিজেপি হারাতে চলেছে।

প্রথম ও দ্বিতীয় দফা মিলে যে 186 টি লোকসভা আসনে ভোট হয়েছে, তাতে প্রথম দফায় 16 টি আসন এবং দ্বিতীয় দফায় 20 টি আসন বিজেপি হারাতে চলেছে। 36 টি জেতা আসন হারাতে পারে।

সুতরাং প্রথম তিন দফায় বিজেপি 308 টি আসিনের মধ্যে বিজেপির লোকসান মোটামুটি কমপক্ষে 60 টি। এইভাবে চললে বিজেপির আসন 200 টির নীচে চলে আসবে। যদি পুণ্য প্রসূন বাজপেয়ীর এই বিশ্লেষণ ঠিক হয় তবে বিজেপির কাছে এটা সত্যিই চিন্তা দায়ক।

Check Also

কোনো ধর্মীয় গ্রন্থ নয় প্রমাণ অনুন, রাম জন্মস্থান পুনর্জীবন কমিটির আইনজীবীকে প্রধান বিচারপতি

বাবরি মসজিদ

সাজানো ভণ্ডামি, পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্রের সঙ্গে আপনি বর্বরতা করেছেন, মুখ্যমন্ত্রীকে মুকুল রায়

বেশ কিছুদিন ধরেই রাজ্যের শাসকদল জোর দিয়েছে জন সংযোগ কর্মসূচি। পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে দিদিকে বলো কর্মসূচি। এই কর্মসূচি উপলক্ষেই গত বুধবার দিঘার দত্তপুরে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। সেখানে দীঘর উন্নয়নের জন্য বেশ কিছু প্রকল্প ঘোষণা করেন। এরপর বাড়ি বাড়ি ঢুকে সাধারণ মানুষের অভাব-অভিযোগ শোনেন তিনি। যেতে যেতেই রাস্তার পাশে একটি চায়ের দোকানে ঢুকে নিজে হাতে চা বানান মুখ্যমন্ত্রী। এরপর তা পরিবেশনও করেন। এই ঘটনাকে জীবনের ছোটো ছোটো আনন্দদায়ক মুহূর্ত হিসাবেই অভিহিত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পদোন্নতির মাধ্যমে শিক্ষক নেওয়া হলে, আদৌ কি যোগ্য প্রার্থীরা প্রধান শিক্ষক হতে পারবেন? উঠছে প্রশ্ন!

এসএসসির মাধ্যমে সহ শিক্ষক নিয়োগে বারে বারে উঠেছে অভিযোগ। কখনো বা এনসিটির রুলস না মানা আবার কখনো বা যোগ্য প্রার্থীকে বাদ দিয়ে অযোগ্য প্রার্থীকে মেধা তালিকায় জায়গা করে দেওয়া। শুধুই যে সহ শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে এমন অভিযোগ আছে তা নয়, প্রধান শিক্ষক নিয়োগ নিয়েও উঠেছে একাধিক অভিযোগ। এসএসসির বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে আদালতে মামলা দায়ের হয়েছেও প্রচুর। ফলে রাজ্যের স্কুল গুলিতে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ বারেবারে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত: বিজেপির শরিক নেতা

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত

দীঘায় চলবে সি প্লেন, তৈরি হবে পুরীর মত জগন্নাথ দেবের মন্দির: মমতা ব্যানার্জী

দীঘা

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!