Breaking News
Home / চাকরির খবর / পশ্চিমবঙ্গ সিভিল সার্ভিস পরীক্ষা ২০২০: WBCS পরীক্ষার খুঁটিনাটি

পশ্চিমবঙ্গ সিভিল সার্ভিস পরীক্ষা ২০২০: WBCS পরীক্ষার খুঁটিনাটি

বিশ্ব বার্তা নিউজ পোর্টাল: রাজ্যের বেশির ভাগ চাকুরী প্রার্থীদের কাছে স্বপ্ন হল WBCS অফিসার হওয়া। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের উচ্চ পদস্থ কর্মচারী নিয়োগের এই স্বপ্ন পূরণের পরীক্ষা হল এই ওয়েস্ট বেঙ্গল সিভিল সার্ভিস (এক্সিকিউটিভ)। আজ আমরা বিস্তারিত জানার চেষ্টা করব এই পরীক্ষা সম্পর্কে। এই পরীক্ষাটি চারটি গ্রুপের (A,B,C,D) অফিসার নিয়োগের জন্য হয়ে থাকে। ওয়েস্ট বেঙ্গল পাবলিক সার্ভিস কমিসন প্রতি বছরেই এই পরীক্ষাটি নিয়ে থাকে।

বয়স এবং শিক্ষাগত যোগ্যতা:

যেকোন শাখার স্নাতক হলেই এই পরীক্ষায় বসা যায়। বয়স হতে হবে ২১-৩৬ (গ্রুপ Bর ক্ষেত্রে ন্যূনতম বয়স ২০, D গ্রুপের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ বয়স ৩৯)। সংরক্ষিত প্রার্থীদের নিয়ম অনুসারে বয়সের ছাড় আছে।

পরীক্ষার ধরণ:

এই পরীক্ষাটি তিনটি ধাপে হয়ে থাকে- ১) প্রিলি, ২) মেইন এবং ৩) ইন্টার্ভিউ

১) প্রিলি: জেনারেল স্টাডিজ এর উপর প্রথম ধাপ এটি। মোট ২০০ টি এমসিকিউ ধরনের প্রশ্ন থাকে। প্রতিটির মান ১ নম্বর। নেগেটিভ নম্বর থাকে। মোট সময় থাকবে ২ঘন্টা ৩০ মিনিট৷

মোট আটটি বিষয় থেকে প্রশ্নোগুলি করা হয়, তা হল–

1. English Composition 25
2. General Science 25
3. Current events of National & International Importance 25
4. History of India 25

5. Geography of India with special reference to West Bengal 25
6. Indian Polity and Economy 25
7. Indian National Movement 25
8. General Mental Ability 25

২) মেইন: প্রিলিতে পাশ করলে মেইন পরীক্ষায় বসা যায়। মেইন পরীক্ষায় মোট ৬ টি compulsory papers থাকে এবং একটি Optional paper থাকে৷ প্রত্যেক compulsory papers মোট ২০০ করে৷ এছাড়া A , B গ্রুপের জন্য একটি Optional paper বেছে নিতে হয়। গ্রুপ C ও D এর জন্য অপশনাল পেপার নেওয়ার দরকার নেই। প্রতিটি পেপারের জন্য সময় বরাদ্দ ৩ ঘন্টা৷

ছয়টি compulsory paper হল-

Paper 1 Bengali/Hindi/Urdu/Nepali/Santali Conventional Writing Type
Paper 2 English
Paper 3 General Studies- I MCQ Based Objective Nature

Paper 4 General Studies- II
Paper 5 The Constitution of India and Indian Economy (including role and functions of Reserve Bank of India)
Paper 6 Arithmetic and Test of Reasoning

মেইন পরীক্ষায় অবজেক্টিভ টাইপের প্রশ্ন থাকে। তবে, বাংলা/হিন্দি/উর্দু/নেপালি/সাঁওতালি, ইংরাজি এবং অপশনাল পেপারগুলো descriptive ধাঁচে প্রশ্ন থাকবে। A ও B গ্রুপের ক্ষেত্রে মোট ১৬০০ নম্বরের এবং C ও D এর ক্ষেত্রে মোট ১২০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে।

A অথবা B গ্রুপের পরীক্ষা দিলে গেলে নিচের তালিকা থেকে একটি বিষয় Optional paper হিসাবে বেছে নিতে হবে। তালিকাটি দেখুন-

৩) ইন্টার্ভিউWBCS পরীক্ষার শেষ ধাপে হল ইন্টারভিউ বা পার্সোনালিটি টেস্ট। A গ্রুপ এবং B গ্রুপ এর জন্য ২০০ নম্বরের ইন্টারভিউ নেওয়া হয়। গ্রুপ C র জন্য ১৫০ নম্বরের এবং গ্রুপ D র জন্য ১০০ নম্বরের ইন্টারভিউ নেওয়া হয় থাকে।

WBCS পরীক্ষা দিয়ে আপনি কোন কোন দপ্তরে চাকরি পেতে পারেন, দেখে নিন এক নজরে-

Group A:

1. West Bengal Civil Service (Executive),
2.West Bengal Commercial Tax Service,
3.West Bengal Agricultural Income tax Service,
4.West Bengal Excise Service,

5.West Bengal Co-operative Service,
6.West Bengal Co-operative Service,
7.West Bengal Food and Supplies Service,
8.West Bengal Employment Service [Except the post of
Employment Officer (Technical)].
9.West Bengal Registration and Stamp Revenue Service.

Group B: West Bengal Police Service

Group C:

1.Joint Block Development Officer,
2.Deputy Assistant Director of Consumer Affairs and Fair Business Practices,
3.West Bengal Junior Social Welfare Service,

4.West Bengal Subordinate Land Revenue Service, Grade-I, 5.Assistant Commercial Tax Officer,
6.Assistant Canal Revenue Officer (Irrigation),
7.Chief Controller of Correctional Services.

Group D:

1. Inspector of Co-operative Societies,
2.Panchayat Development Officer under the Panchayat and
Rural Development Department,
3. Rehabilitation Officer under the Refugee Relief and Rehabilitation Department.

Check Also

সাজানো ভণ্ডামি, পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্রের সঙ্গে আপনি বর্বরতা করেছেন, মুখ্যমন্ত্রীকে মুকুল রায়

বেশ কিছুদিন ধরেই রাজ্যের শাসকদল জোর দিয়েছে জন সংযোগ কর্মসূচি। পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে দিদিকে বলো কর্মসূচি। এই কর্মসূচি উপলক্ষেই গত বুধবার দিঘার দত্তপুরে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। সেখানে দীঘর উন্নয়নের জন্য বেশ কিছু প্রকল্প ঘোষণা করেন। এরপর বাড়ি বাড়ি ঢুকে সাধারণ মানুষের অভাব-অভিযোগ শোনেন তিনি। যেতে যেতেই রাস্তার পাশে একটি চায়ের দোকানে ঢুকে নিজে হাতে চা বানান মুখ্যমন্ত্রী। এরপর তা পরিবেশনও করেন। এই ঘটনাকে জীবনের ছোটো ছোটো আনন্দদায়ক মুহূর্ত হিসাবেই অভিহিত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পদোন্নতির মাধ্যমে শিক্ষক নেওয়া হলে, আদৌ কি যোগ্য প্রার্থীরা প্রধান শিক্ষক হতে পারবেন? উঠছে প্রশ্ন!

এসএসসির মাধ্যমে সহ শিক্ষক নিয়োগে বারে বারে উঠেছে অভিযোগ। কখনো বা এনসিটির রুলস না মানা আবার কখনো বা যোগ্য প্রার্থীকে বাদ দিয়ে অযোগ্য প্রার্থীকে মেধা তালিকায় জায়গা করে দেওয়া। শুধুই যে সহ শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে এমন অভিযোগ আছে তা নয়, প্রধান শিক্ষক নিয়োগ নিয়েও উঠেছে একাধিক অভিযোগ। এসএসসির বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে আদালতে মামলা দায়ের হয়েছেও প্রচুর। ফলে রাজ্যের স্কুল গুলিতে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ বারেবারে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত: বিজেপির শরিক নেতা

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত

দীঘায় চলবে সি প্লেন, তৈরি হবে পুরীর মত জগন্নাথ দেবের মন্দির: মমতা ব্যানার্জী

দীঘা

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

কলেজের অতিথি অধ্যাপকদের ধামাকাদার বেতন বৃদ্ধি

কলেজের অতিথি অধ্যাপকদের ধামাকাদার বেতন বৃদ্ধি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *