Breaking News
Home / পলিটিক্স / নো সিকিউরিটি নো ডিউটি, দাবি জোরাল হচ্ছে ভোটকর্মী মহলে

নো সিকিউরিটি নো ডিউটি, দাবি জোরাল হচ্ছে ভোটকর্মী মহলে

বিশ্ব বার্তা নিউজ পোর্টাল: 

প্রিয় সাথী,

আমরা সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা-শিক্ষাকর্মী বিগত বছরগুলোর মতো এবছরও নির্বাচনের কাজে যুক্ত হয়েছি। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব আমাদের ওপর ন্যস্ত হয়, কারন মূল ভোটগ্রহণ পর্ব সম্পূর্ণভাবে তৃণমূল স্তরে আমরাই পরিচালনা করি। বুথগুলিতে কি চরম প্রতিকূল পরিস্থিতিতে অনাহারে-অর্ধাহারে, গ্রীষ্মের দাবদাহ উপেক্ষা করেও সুষ্ঠু নির্বাচন পরিচালনা করতে হয় তা সকলেই জানি। এত কিছুর পরেও আমরা উৎসাহে, দায়িত্ব নিয়ে ভোটগ্রহণ করতে যাই, রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব, কর্তব্য পালন করতে। তাহলে সেই রাষ্ট্রের উচিৎ, আর কিছু না হোক, আমাদের জীবনের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করা।

পশ্চিমবঙ্গের সাম্প্রতিক কয়েকটি নির্বাচনের টাটকা স্মৃতি আমাদের তাড়িয়ে বেড়াচ্ছে। অতি সম্প্রতি পঞ্চায়েত নির্বাচনে রায়গঞ্জের শিক্ষক রাজকুমার রায় মহাশয়ের মৃত্যু আমাদের শিহরিত করেছে। দুর্ঘটনা হোক, আর হত্যাই হোক, প্রসাশন যে তাঁকে নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে তা দিনের আলোর মত পরিষ্কার। এই একটি ঘটনাই নয়, বিভিন্ন বুথে পোলিং অফিসারদের ওপর শারীরিক ও মানসিক যে অত্যাচার হয়েছে তাতে আমরা নিজেদের অত্যন্ত বিপন্ন অবস্থায় আছি বলে মনে করছি।

সেই কারণে আসুন, সকলে মিলে সিদ্ধান্ত নিই, প্রতিটি বুথে পর্যাপ্ত নিরপেক্ষ সশস্ত্র কেন্দ্রীয় বাহিনী না থাকলে আমরা নির্বাচনে যাবো না। আগামী ৬ই এপ্রিল আমাদের জেলায় (দক্ষিণ ২৪ পরগণা) ভোটের ট্রেনিং শুরু হচ্ছে। সমস্ত প্রশিক্ষণ কেন্দ্রেই একযোগে আওয়াজ উঠুক নো সিকিউরিটি নো ডিউটি (No Security No Duty)। যতক্ষন না আমরা রিটার্নিং অফিসার এর থেকে লিখিত আশ্বাস পাবো ততক্ষন আমরা ট্রেনিং নেব না। সংবিধান এর ২১ নম্বর ধারা অনুযায়ী প্রত্যেক নাগরিকের জীবনের অধিকার স্বীকৃত। আসুন একসাথে লড়াই হোক।

(আবেদন করেছেন মাননীয় শিক্ষক আম্বরিষ কুমার দত্ত )

Check Also

সাজানো ভণ্ডামি, পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্রের সঙ্গে আপনি বর্বরতা করেছেন, মুখ্যমন্ত্রীকে মুকুল রায়

বেশ কিছুদিন ধরেই রাজ্যের শাসকদল জোর দিয়েছে জন সংযোগ কর্মসূচি। পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে দিদিকে বলো কর্মসূচি। এই কর্মসূচি উপলক্ষেই গত বুধবার দিঘার দত্তপুরে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। সেখানে দীঘর উন্নয়নের জন্য বেশ কিছু প্রকল্প ঘোষণা করেন। এরপর বাড়ি বাড়ি ঢুকে সাধারণ মানুষের অভাব-অভিযোগ শোনেন তিনি। যেতে যেতেই রাস্তার পাশে একটি চায়ের দোকানে ঢুকে নিজে হাতে চা বানান মুখ্যমন্ত্রী। এরপর তা পরিবেশনও করেন। এই ঘটনাকে জীবনের ছোটো ছোটো আনন্দদায়ক মুহূর্ত হিসাবেই অভিহিত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পদোন্নতির মাধ্যমে শিক্ষক নেওয়া হলে, আদৌ কি যোগ্য প্রার্থীরা প্রধান শিক্ষক হতে পারবেন? উঠছে প্রশ্ন!

এসএসসির মাধ্যমে সহ শিক্ষক নিয়োগে বারে বারে উঠেছে অভিযোগ। কখনো বা এনসিটির রুলস না মানা আবার কখনো বা যোগ্য প্রার্থীকে বাদ দিয়ে অযোগ্য প্রার্থীকে মেধা তালিকায় জায়গা করে দেওয়া। শুধুই যে সহ শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে এমন অভিযোগ আছে তা নয়, প্রধান শিক্ষক নিয়োগ নিয়েও উঠেছে একাধিক অভিযোগ। এসএসসির বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে আদালতে মামলা দায়ের হয়েছেও প্রচুর। ফলে রাজ্যের স্কুল গুলিতে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ বারেবারে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত: বিজেপির শরিক নেতা

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত

দীঘায় চলবে সি প্লেন, তৈরি হবে পুরীর মত জগন্নাথ দেবের মন্দির: মমতা ব্যানার্জী

দীঘা

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

কলেজের অতিথি অধ্যাপকদের ধামাকাদার বেতন বৃদ্ধি

কলেজের অতিথি অধ্যাপকদের ধামাকাদার বেতন বৃদ্ধি