Breaking News
Home / ভারত বর্ষ / নিজে গুলি খেয়ে নেতাজিকে বাঁচিয়েছিলেন কর্নেল নিজামুদ্দিন, ঠাঁই মেলেনি ইতিহাসের পাতায়!

নিজে গুলি খেয়ে নেতাজিকে বাঁচিয়েছিলেন কর্নেল নিজামুদ্দিন, ঠাঁই মেলেনি ইতিহাসের পাতায়!

নিউজ ডেস্ক: নামের আগে কর্নেল থাকলেও তিনি সেনাবাহিনীর কেউ নন। ভারতের স্বাধীনতার অন্যতম পুরোধা নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বোসের ব্যক্তিগত গাড়ির চালক ছিলেন তিনি। আসল নাম সইফুদ্দিন। স্নেহবশত নেতাজি তাকে কর্নেল নামে ডাকতেন।

সময়টা ১৯৪৪। নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর অন্যতম বিশ্বস্ত সহযোদ্ধা, দেহরক্ষী, গাড়ির চালক কর্ণেল নিজামুদ্দিন মায়ানমারের জঙ্গলে নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর সাথে চা খাচ্ছিলেন। হঠাৎ ধেয়ে এল গুলি নেতাজীকে লক্ষ্য করে। ঝাঁপিয়ে পড়ে নেতাজী সরিয়ে দিলেন নিজামুদ্দিন। কিন্তু নিজেকে পারলেন না সরাতে। নেতাজীকে লক্ষ্য করে ছোঁড়া গুলি এফোঁড় ওফোঁড় করে দিল নিজামুদ্দিনের শরীর।

কর্ণেল নিজামুদ্দিনের আসল নাম ছিল সইফুদ্দিন। নিজামুদ্দিন নামটাও নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর দেওয়া। আজমগড়ের মুবারকপুরের ঢাকুয়া গ্রামে ১৯০১ সালে জন্মগ্রহণ করেন নিজামুদ্দিন ওরফে সইফুদ্দিন। বাবা ইমান আলি সিঙ্গাপুরে একটি ক্যান্টিন চালাতেন। গ্রাম ছেড়ে তিনি বাবার কাছে চলে যান। পরে সেখানেই তিনি আজাদ হিন্দ ফৌজে যোগদান করেন। ১৯৪৩-৪৫ সাল পর্যন্ত তিনি আজাদ হিন্দ ফৌজে ছিলেন। ধীরে ধীরে নেতাজীর ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠেন। তাকে প্রথমে দেহরক্ষী পরে গাড়ির চালক হিসাবে নিযুক্ত করেন নেতাজী। তাকে কর্ণেল নিজামুদ্দিন নাম দেন নেতাজী। কর্ণেল নিজামুদ্দিন নিজে গাড়ি চালিয়ে নেতাজীকে পৌছে দিয়ে এসেছিলেন মায়ানমারের বেতাই নদীর তীরে। সেখান থেকে সাবমেরিনে চেপে জাপান চলে যান নেতাজী। যাওয়ার সময় নেতাজী রেজিমেন্টের দায়িত্ব দিয়ে যান কর্ণেল নিজামুদ্দিনের ওপর। সেই দায়িত্ব নিষ্ঠাভরে পালন করেছিলেন কর্ণেল নিজামুদ্দিন।

কখনও নেতাজির গাড়ির চালক হয়েছেন, তো কখনও প্রয়োজনে ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে হাতে অস্ত্র তুলে নিয়েছেন। স্বাধীনতা সংগ্রামে যাঁরা নিজেদের জীবন বাজি রেখেছিলেন, অথচ ইতিহাসে যাঁদের কথা তেমন করে লেখা থাকে না, তিনিও তাঁদের মধ্যে একজন।

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে বারাণসীতে ভোটের প্রচারে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিজামুদ্দিনের সঙ্গে দেখা করেন ও তার পা ছুঁয়ে প্রণাম করেছিলেন। নেতাজির মৃত্যু আজও রহস্যাবৃত। তবে কর্নেলের মতো কয়েকজনের স্মৃতিতে অমলিন ছিলেন তিনি। সদা জাগ্রত ছিল নেতাজির আদর্শ। যা তিনি বরাবর ছড়িয়ে দিয়েছেন তার উত্তরসূরিদের মধ্যেও। ২০১৭ সালে মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ১১৬ বছর। তার প্রয়াণ যেন তাই সেই দীর্ঘ পরম্পরাতেই পূর্ণচ্ছেদ।

Check Also

‘শোষক আসবে, শোষক যাবে, কাগজ আমরা দেখাব না।’ রীতিমত ভাইরাল নেটদুনিয়ায়

নিউজ ডেস্ক: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন এবং এনআরসি নিয়ে দেশজুড়ে চলছে আন্দলোন। এর বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে …

কেন্দ্রে কংগ্রেস ক্ষমতায় আসলেই বাতিল হবে সিএএ ও এনআরসি: প্রিয়াঙ্কা গান্ধী

নিউজ ডেস্ক: এনআরসি এবং সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে আন্দলন করছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল সহ …

বিজ্ঞানে দেশের প্রথম মহিলা ডক্টরেট, অর্গানিক কেমিস্ট্রিতে পিএচডি করেছিলেন ১৯৪৪ সালেই, চেনেন কি এই কিংবদন্তি বাঙালিকে?

নিউজ ডেস্ক: সালটা ছিল ১৯৪৪, দেশ তখনও স্বাধীন হয়নি। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অরগ্যানিক কেমিস্ট্রি নিয়ে …

অসাধারণ! দীর্ঘ ১১ বছর ধরে প্রতিদিন গলা সমান জল পেরিয়ে স্কুলে পৌঁছান ওড়িশার বিনোদিনী

নিউজ ডেস্ক: সমাজ গড়ার কারিগর হল শিক্ষক। পড়ুয়াদের ভবিষ্যৎ গড়ার দায়িত্ব হাতে থাকে শিক্ষিক–শিক্ষিকাদের উপর। …

সিএএ অসাংবিধানিক, সুপ্রিম কোর্টের উচিত এখনই তা বাতিল করা: অমর্ত সেন

নিউজ ডেস্ক: সুপ্রিম কোর্টের উচিত এখনই সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) বাতিল করে দেওয়া বললেন বিশিষ্ট …

আন্দোলনকারীদের প্রতি সংহতি প্রকাশে জেএনইউ পৌঁছেছেন দীপিকা পাডুকোন

নিউজ ডেস্ক: অভিনেতা দীপিকা পাডুকোন মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাম্প্রতিক সহিংসতার প্রতিবাদকারী শিক্ষার্থীদের সাথে সংহতি জানাতে জওহরলাল …

Breaking News: ঐতিহাসিক রায় সুপ্রিমকোর্টের, শিক্ষক নিয়োগ করবে কমিশন!

নিউজ ডেস্ক: সুপ্রিমকোর্টে ঐতিহাসিক রায় হল আজ। সম্পন্ন হল দীর্ঘদিনের আইনি লড়াই। মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.