Breaking News
Home / পশ্চিমবঙ্গ / টিজিটি স্কেলের দাবিতে আগামী ১৯শে আগস্ট ‘কলকাতা চলো’ ডাক দিল বিজিটিএ

টিজিটি স্কেলের দাবিতে আগামী ১৯শে আগস্ট ‘কলকাতা চলো’ ডাক দিল বিজিটিএ

বিশ্ব বার্তা নিউজ পোর্টাল: টিজিটি পে স্কেলের দাবিতে দীর্ঘ দিন ধরেই সরব রাজ্যের গ্র্যাজুয়েট শিক্ষকরা। এই দাবি নিয়ে দীর্ঘদিন রাজ্যে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে বৃহত্তর গ্র্যাজুয়েট টিচার্স এ্যাসোসিয়েশন (বিজিটিএ)। আজ রবিবার, বহরমপুর গোরাবাজার আইসিআই স্কুলে বিজিটিএ-এর মুর্শিদাবাদ জেলা শাখার আয়োজনে একটি সভা অনুষ্ঠিত হল। গত ২২শে জুলাই, কোলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য গ্রাজুয়েট শিক্ষকদের টিজিটি পে স্কেলের পক্ষে রায় দিয়েছিলেন। রাজ্য সরকার সেই রায়কে মেনে না নিয়ে গ্রাজুয়েট শিক্ষকদের বঞ্চিত করেই চলছে। এরই প্রতিবাদে আগামী ১৯শে আগস্ট ‘কলকাতা চলো’ ডাক দেওয়া হয়েছে সংগঠনটির পক্ষ থেকে । এই সভাতে উপস্থিত ছিলেন বিজিটিএর রাজ্য ও জেলা নেতৃত্ব নীলাদ্রি শেখর সমাদ্দার, সাবির চাঁদ, সুদীপ সাহা, সাবির আলি, শুভাশীস সাহা, হাসানুজ্জামান, রাজীব হোসেন, প্রমুখরা। 

শিক্ষক(বিজিটিয়ান) সাবির চাঁদ বলেন, “রাজ্যের গ্র্যাজুয়েট শিক্ষকগণের কেন্দ্রের পে কমিশন অনুযায়ী রাজ্যের রোপা’২০০৯ (৫ম রাজ্য পে কমিশন) এ পে স্কেল হওয়া উচিত ছিল পে ব্যান্ড-৪ ও গ্রেড পে ৪৬০০টাকা। কিন্তু তা না করে গ্র্যাজুয়েট শিক্ষকদের ‘পাস ক্যাটেগরির’ অন্তর্ভুক্ত করে ‘পে স্কেল’ করা হয়েছে পে ব্যান্ড-৩, গ্রেড পে-৪১০০ টাকা। এই বেতন বৈষম্য ও বঞ্চনার বিরুদ্ধে গ্র্যাজুয়েট ক্যাটেগরির শিক্ষক/শিক্ষিকাদের নিয়ে গড়ে উঠেছে অরাজনৈতিক সংগঠন বৃহত্তর গ্র্যাজুয়েট টিচার্স এ্যাসোসিয়েশন (বিজিটিএ)। আমরা ইতিমধ্যে মহামান্য উচ্চ ন্যায়ালয়ে একাধিক মামলায় জিতেছি। আদালতের সেই রায়কে যাতে দ্রুত কার্যকর করা হয়, তার দাবিতে আগামী ১৯শে আগস্ট কলকাতায় মহাসমাবেশ ও মহামিছিলের ডাক দেওয়া হয়েছে। যত দিন টিজিটি পে স্কেলের জি.ও না বেরোয় ততদিন আমাদের এই আন্দোলন চলবে। আমরা শেষ দেখে ছাড়বো”

Check Also

সাজানো ভণ্ডামি, পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্রের সঙ্গে আপনি বর্বরতা করেছেন, মুখ্যমন্ত্রীকে মুকুল রায়

বেশ কিছুদিন ধরেই রাজ্যের শাসকদল জোর দিয়েছে জন সংযোগ কর্মসূচি। পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে দিদিকে বলো কর্মসূচি। এই কর্মসূচি উপলক্ষেই গত বুধবার দিঘার দত্তপুরে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। সেখানে দীঘর উন্নয়নের জন্য বেশ কিছু প্রকল্প ঘোষণা করেন। এরপর বাড়ি বাড়ি ঢুকে সাধারণ মানুষের অভাব-অভিযোগ শোনেন তিনি। যেতে যেতেই রাস্তার পাশে একটি চায়ের দোকানে ঢুকে নিজে হাতে চা বানান মুখ্যমন্ত্রী। এরপর তা পরিবেশনও করেন। এই ঘটনাকে জীবনের ছোটো ছোটো আনন্দদায়ক মুহূর্ত হিসাবেই অভিহিত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পদোন্নতির মাধ্যমে শিক্ষক নেওয়া হলে, আদৌ কি যোগ্য প্রার্থীরা প্রধান শিক্ষক হতে পারবেন? উঠছে প্রশ্ন!

এসএসসির মাধ্যমে সহ শিক্ষক নিয়োগে বারে বারে উঠেছে অভিযোগ। কখনো বা এনসিটির রুলস না মানা আবার কখনো বা যোগ্য প্রার্থীকে বাদ দিয়ে অযোগ্য প্রার্থীকে মেধা তালিকায় জায়গা করে দেওয়া। শুধুই যে সহ শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে এমন অভিযোগ আছে তা নয়, প্রধান শিক্ষক নিয়োগ নিয়েও উঠেছে একাধিক অভিযোগ। এসএসসির বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে আদালতে মামলা দায়ের হয়েছেও প্রচুর। ফলে রাজ্যের স্কুল গুলিতে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ বারেবারে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত: বিজেপির শরিক নেতা

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত

দীঘায় চলবে সি প্লেন, তৈরি হবে পুরীর মত জগন্নাথ দেবের মন্দির: মমতা ব্যানার্জী

দীঘা

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

কলেজের অতিথি অধ্যাপকদের ধামাকাদার বেতন বৃদ্ধি

কলেজের অতিথি অধ্যাপকদের ধামাকাদার বেতন বৃদ্ধি