Breaking News
Home / পশ্চিমবঙ্গ / জেইই মেইন-II: 7 এপ্রিল থেকে পরীক্ষা শুরু, প্রার্থীদের জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশাবলী

জেইই মেইন-II: 7 এপ্রিল থেকে পরীক্ষা শুরু, প্রার্থীদের জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশাবলী

বিশ্ব বার্তা নিউজ পোর্টাল: 7 এপ্রিল থেকে জাতীয় পরীক্ষা সংস্থা, এনটিএ জে.ই.ই. মেইন, 2019 সালের পরীক্ষা নেওয়া শুরু করবে। পরীক্ষাটি 7 এপ্রিল থেকে 20 এপ্রিলের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে। প্রায় 9.5 লক্ষ প্রার্থী পরীক্ষার জন্য রেজিস্ট্রেশন করেছেন। জেইই মেইন পরীক্ষার প্রথম ফেজে (জানুয়ারী) উপস্থিত পরীক্ষার্থীরা, তাদের স্কোর উন্নতি করার জন্য দ্বিতীয় ফেজের (এপ্রিল) পরীক্ষায় উপস্থিত হতে পারবেন। 

যে সকল প্রার্থী এখনো অ্যাডমিট কার্ড ডাউনলোড করেননি তাঁরা অবশ্যই জেইই মেইন-এর অফিসিয়াল সাইটের মাধ্যমে শেষ তারিখের আগে অ্যাডমিট কার্ড ডাউনলোড করে নিন।

ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সে ভর্তির জন্য পেপার-1 এবং স্থাপত্যবিদ্যায় ভর্তির জন্য পেপার-2 পরীক্ষা অনলাইনে নেওয়া হবে। পরীক্ষার সময় তিন ঘণ্টা। জে.ই.ই. মেইন দুটো ফেজে পরিচালিত হবে। পেপার-1 পরীক্ষাটি সকাল 9.30 এবং পেপার-2 পরীক্ষাটি বিকাল 2.30 তে শুরু হবে।

পরীক্ষার নতুন সময় সূচী:

পেপার-1: 8, 9,10,12 এপ্রিল, 2019
পেপার-2: 7 এপ্রিল, 2019

জেইই মেইন এপ্রিল, 2019 পরীক্ষার পেপার-1 এর ফল 30 এপ্রিল এবং পেপার-2 এর ফল 15 মে প্রকাশিত হবে। যারা এখনও অ্যাডমিট কার্ড ডাউনলোড করেননি তারা, অফিসিয়াল ওয়েবসাইট, jeemain.nic.in থেকে অ্যাডমিট কার্ড ডাউনলোড করে নিন।

জেইই মেইন 2019: প্রার্থীদের জন্য কিছু গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশাবলী:

সকল পরীক্ষার্থীর পরীক্ষার জন্য সেন্টারে উপস্থিত হওয়ার আগে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা অবশ্যই জেনে রাখতে হবে।

1) কোন ধরনের ঝামেলা এড়ানোর জন্য শেষ তারিখের আগে অ্যাডমিট কার্ডটি ডাউনলোড করুন। একবার ডাউনলোড হয়ে গেলে, রিপোর্টিং টাইম, গেট ক্লোজিং টাইম, পরীক্ষার তারিখ এবং পরীক্ষার স্থান, অ্যাডমিট কার্ডে দেওয়া বিবরণটি চেক করুন। কোনও ত্রুটি থাকলে অবশ্যই সংশোধন করার জন্য এনটিএর সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

2) পরীক্ষার জন্য উপস্থিত হওয়ার আগে অবশ্যই মক পরীক্ষা (Mock Test) দিন। আপনার গতি বাড়ানোর জন্য এবং জে.ই.ই. মেইন 2019 পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের সাথে পরিচিত হওয়ার জন্য মক পরীক্ষাগুলি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। প্রশ্নগুলির ধরন এবং প্যাটার্ন জানতে এগুলো প্রার্থীদের খুব সাহায্য করে।

3) পরীক্ষা কেন্দ্রে অ্যাডমিট কার্ড ছাড়াও ফটো আইডেন্টিটি প্রুফ হিসাবে অবশ্যই আঁধার কার্ড বা ভোটার কার্ড নিয়ে যেতে হবে। এছাড়া পাসপোর্ট আকারের এককপি ছবি সঙ্গে করে নিয়ে যেতে হবে। পিডব্লিউ বিভাগের প্রার্থীদের ক্ষেত্রে, পিডব্লিউ সার্টিফিকেট সঙ্গে করে নিয়ে যেতে হবে।

4) নির্ধারিত সময়ের আগেই পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছাতে হবে। দরকার পড়লে এক দিন আগেই পরীক্ষাকেন্দ্র দেখে আসা উচিত। কোনও প্রকার অবাঞ্চিত ঝামেলা এবং ট্র্যাফিক জ্যাম এড়াতে নির্ধারিত সময়ের অন্তত 15 মিনিট আগে পরীক্ষার হলে পৌঁছান।

5) প্রার্থীদের কোনো প্রকার ইলেকট্রনিক ডিভাইস, ব্যাগ, ভোজ্যতেল বহন করার অনুমতি দেওয়া হবে না। পরীক্ষা করে দেখুন যে আপনি এই সব গ্যাজেট পরীক্ষাকেন্দ্রে আপনার সাথে এনেছেন কিনা!

Check Also

সাজানো ভণ্ডামি, পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্রের সঙ্গে আপনি বর্বরতা করেছেন, মুখ্যমন্ত্রীকে মুকুল রায়

বেশ কিছুদিন ধরেই রাজ্যের শাসকদল জোর দিয়েছে জন সংযোগ কর্মসূচি। পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে দিদিকে বলো কর্মসূচি। এই কর্মসূচি উপলক্ষেই গত বুধবার দিঘার দত্তপুরে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। সেখানে দীঘর উন্নয়নের জন্য বেশ কিছু প্রকল্প ঘোষণা করেন। এরপর বাড়ি বাড়ি ঢুকে সাধারণ মানুষের অভাব-অভিযোগ শোনেন তিনি। যেতে যেতেই রাস্তার পাশে একটি চায়ের দোকানে ঢুকে নিজে হাতে চা বানান মুখ্যমন্ত্রী। এরপর তা পরিবেশনও করেন। এই ঘটনাকে জীবনের ছোটো ছোটো আনন্দদায়ক মুহূর্ত হিসাবেই অভিহিত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পদোন্নতির মাধ্যমে শিক্ষক নেওয়া হলে, আদৌ কি যোগ্য প্রার্থীরা প্রধান শিক্ষক হতে পারবেন? উঠছে প্রশ্ন!

এসএসসির মাধ্যমে সহ শিক্ষক নিয়োগে বারে বারে উঠেছে অভিযোগ। কখনো বা এনসিটির রুলস না মানা আবার কখনো বা যোগ্য প্রার্থীকে বাদ দিয়ে অযোগ্য প্রার্থীকে মেধা তালিকায় জায়গা করে দেওয়া। শুধুই যে সহ শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে এমন অভিযোগ আছে তা নয়, প্রধান শিক্ষক নিয়োগ নিয়েও উঠেছে একাধিক অভিযোগ। এসএসসির বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে আদালতে মামলা দায়ের হয়েছেও প্রচুর। ফলে রাজ্যের স্কুল গুলিতে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ বারেবারে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত: বিজেপির শরিক নেতা

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত

দীঘায় চলবে সি প্লেন, তৈরি হবে পুরীর মত জগন্নাথ দেবের মন্দির: মমতা ব্যানার্জী

দীঘা

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

কলেজের অতিথি অধ্যাপকদের ধামাকাদার বেতন বৃদ্ধি

কলেজের অতিথি অধ্যাপকদের ধামাকাদার বেতন বৃদ্ধি