Breaking News
Home / ভারত বর্ষ / জানেন কি ভারতের এই ১১ টি রাজ্যে আপনি বাইরে থেকে এসে জমি কিনতে পারবেন না!

জানেন কি ভারতের এই ১১ টি রাজ্যে আপনি বাইরে থেকে এসে জমি কিনতে পারবেন না!

বিশ্ব বার্তা নিউজ পোর্টাল: বাইরের লোক কাশ্মীরের জমি কিনতে পারবেন না, এটা তো আমরা সবাই জানি! কিন্তু জানেন কি শুধু কাশ্মীর নয়, ভারতের এরকম ১১টি রাজ্য আছে যেখানকার স্থানীয় জনগন ছাড়া কেউ জমি কিনতে পারেন না। 

স্থানীয় কাশ্মীরি পণ্ডিতদের দাবিতে ১৯৩৫ খ্রিস্টাব্দে রাজা হরি সিং বাইরের লোক কাশ্মীরে জমি কিনতে পারবে না এই আইন তৈরি করেন। দেশ ভাগের পর কাশ্মীরের ভারতে যোগ দানের সময় থেকেই ভারত সরকার এই দাবি মেনে নেয়।

শুধু কাশ্মীর নয় নাগাল্যান্ড, মিজোরাম, অরুণাচল প্রদেশ, সিকিমসহ দেশের ১১ টি রাজ্যে রাজ্যের বাসিন্দা ছাড়া বাইরের কেউ জমি কিনতে পারেন না।

উত্তর পূর্বের বিভিন্ন রাজ্যেরও জমি বিষয়ে বিভিন্ন আইন রয়েছে। নাগাল্যান্ড, অরুণাচল এবং মিজোরামের মতো রাজ্যে কেবল স্থানীয় রাই জমি কিনতে পারে। মেঘালয়ে,কেবল ইউরোপীয় ওয়ার্ড হিসাবে পরিচিত শিলংয়ের একটি ছোট্ট অংশ সকলের কাছে বিক্রয়ের জন্য উন্মুক্ত। মণিপুর, ত্রিপুরা এবং আসাম রাজ্যে, ভারতের অন্যান্য অংশের লোকেরা উপজাতি ব্লক এবং বেল্ট বাদে বাকি জমি কিনতে পারে। সিকিমের মধ্যে, আদিবাসীদের জমির বিক্রয় অনুমোদিত নয় এবং রাজ্যের কিছু অংশ কেবল উপজাতি ভূটিয়া এবং লেপচাদের জন্যই সংরক্ষিত বলে বিবেচিত হয়।

আপনি কৃষক না হলে গুজরাটের কৃষিজমি কিনতে পারবেন না। বাইরের রাজ্য থেকে গুজরাটের কৃষিজ জমি সরাসরি কিনতে পারবেন না। গুজরাটের কোনো কৃষকের সঙ্গে আপনি একটি সমঝোতা চুক্তি করতে পারেন তবে তিনি চুক্তির শর্ত অনুযায়ী জমি কিনতে পারবেন।

মহারাষ্ট্রের কিছু এলাকাতেও আপনি আর্টিকল-৩৭১ এর বলে বাইরে থেকে এসে জমি কিনতে পারবেন না। 

পশ্চিমবঙ্গসহ সারা দেশেই আদিবাসীদের জমি কেনা যায় না।

সবচেয়ে অবাক করার মত ব্যাপার হল, কাশ্মীরে যেতে গেলে আলাদা কোনো পারমিট নিতে হয় না। কিন্তু অরুণাচল প্রদেশ, নাগাল্যান্ডের মত রাজ্যে যেতে গেলে আলাদা পারমিট নিতে হয়। তবে এই বিষয়গুলো অনেকই জানেন না। 

Check Also

কোনো ধর্মীয় গ্রন্থ নয় প্রমাণ অনুন, রাম জন্মস্থান পুনর্জীবন কমিটির আইনজীবীকে প্রধান বিচারপতি

বাবরি মসজিদ

সাজানো ভণ্ডামি, পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্রের সঙ্গে আপনি বর্বরতা করেছেন, মুখ্যমন্ত্রীকে মুকুল রায়

বেশ কিছুদিন ধরেই রাজ্যের শাসকদল জোর দিয়েছে জন সংযোগ কর্মসূচি। পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে দিদিকে বলো কর্মসূচি। এই কর্মসূচি উপলক্ষেই গত বুধবার দিঘার দত্তপুরে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। সেখানে দীঘর উন্নয়নের জন্য বেশ কিছু প্রকল্প ঘোষণা করেন। এরপর বাড়ি বাড়ি ঢুকে সাধারণ মানুষের অভাব-অভিযোগ শোনেন তিনি। যেতে যেতেই রাস্তার পাশে একটি চায়ের দোকানে ঢুকে নিজে হাতে চা বানান মুখ্যমন্ত্রী। এরপর তা পরিবেশনও করেন। এই ঘটনাকে জীবনের ছোটো ছোটো আনন্দদায়ক মুহূর্ত হিসাবেই অভিহিত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পদোন্নতির মাধ্যমে শিক্ষক নেওয়া হলে, আদৌ কি যোগ্য প্রার্থীরা প্রধান শিক্ষক হতে পারবেন? উঠছে প্রশ্ন!

এসএসসির মাধ্যমে সহ শিক্ষক নিয়োগে বারে বারে উঠেছে অভিযোগ। কখনো বা এনসিটির রুলস না মানা আবার কখনো বা যোগ্য প্রার্থীকে বাদ দিয়ে অযোগ্য প্রার্থীকে মেধা তালিকায় জায়গা করে দেওয়া। শুধুই যে সহ শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে এমন অভিযোগ আছে তা নয়, প্রধান শিক্ষক নিয়োগ নিয়েও উঠেছে একাধিক অভিযোগ। এসএসসির বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে আদালতে মামলা দায়ের হয়েছেও প্রচুর। ফলে রাজ্যের স্কুল গুলিতে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ বারেবারে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত: বিজেপির শরিক নেতা

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত

দীঘায় চলবে সি প্লেন, তৈরি হবে পুরীর মত জগন্নাথ দেবের মন্দির: মমতা ব্যানার্জী

দীঘা

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!