Breaking News
Home / সাহিত্য / ছোটো গল্প: মানবরূপী বিড়াল, লেখক: মইনুল ইসলাম

ছোটো গল্প: মানবরূপী বিড়াল, লেখক: মইনুল ইসলাম

বিশ্ব বার্তা: বাড়ির বারান্দার সামনে পাঁচিল ঘেরা একটু জায়গা। এ জায়গায় দুটি পাতাবাহারের গাছ ডালপালা ছড়িয়ে দন্ডায়মান। মনে হচ্ছে যেন দুটি ঝাওগাছ। সবার অজানতে ঐ গাছ দুটির একটিতে একটি বুলবুল পাখি খড়কুটো, পাতা দিয়ে বাসাবাধে। এমন জায়গায় মাথা খাটিয়ে বাসাটি বেধেছিল যে, তাতে রোদ বৃষ্টি লাগবে না। এমনকি মানুষের চোখ ও সচারাচর যবে না। শীতের সকাল বেলা বাড়ির বারান্দায় চেয়ারে বসে গাছগুলির দিকে চেয়ে আছি। শিশির ভেজা পাতা, সূর্যের আলোতে হয়ে উঠেছে ঝলমলে, সুন্দর ও মনোরম। আমি বসে বসে গাছ দুটির সৌন্দর্য উপভোগ করছি। এমন সময় বুলবুল পাখিটি গাছের একটি ডালে এসে বসল। বাসাটির কাছে গিয়ে চারিদিকটা দেখে উড়ে গেল। কিছুক্ষন পরে আবার এল এবং আগের মতো বাসার চারিদিকটা দেখে উড়ে গেল। এভাবে পাখিটি বার বার কেন আসা-যাওয়া করছে সেটা দেখার জন‍্য মনে মধ‍্যে সৃষ্টি হল কৌতুহল। কৌতুহলী মন নিয়ে গাছটির কাছে গিয়ে দেখি, সে একটি সুন্দর বাসা বানিয়েছে। তাতে পাতা দিয়ে ঢাকা কিছু ফুলের কুড়ি, ছোট ছোট ফল ও পোকা সংগ্রহ করে রেখেছে।

পরের দিন লক্ষ্য করলাম পাখিটি আগের মতো আচরণ করছে না। মনে মনে ভাবলাম,তা হলে কি পাখিটি ভাবলো,আমি ওর কোন ক্ষতি করবো না! এর পর আমি বারান্দায় বসলে,পাখিটি বাসা থেকে উড়ে ডালে বসতো এবং একটা শব্দ করে উড়ে যেত। পাখিদের ভাষা আমার জানা নেই, তবুও দুই-তিন দিন ঐ রকম করায় নিজের মত করে শব্দটির অর্থ করলাম। যার অর্থ হল- আমি (পাখিটি) তোমার নতুন প্রতিবেশী আমার বাসাটি দেখ। সত্যি ‌‌ তো আমার পাশে যখন আছে, সে তো আমারই প্রতিবেশী সেই থেকে আমার দায়িত্ব বেড়ে গেল। বাড়ির লোক-জন ও ছোটট মেয়েকে বললাম, “বাসাটির প্ৰতি লক্ষ্য রেখো, কেউ যেন বাসাটি ভেঙেগ না দেয়।” আমার কথা মত বাড়ির লোকজন বাসাটি প্রতি নজর রাখত। আমি বাড়ি ফিরলে, ছোট্ট মেয়েটি পাখিটি সারাদিন কী করেছে তার বর্ণনা দিত। আমিও খোঁজ খবর নিতাম। পাখিটি ও নিজেকে নিরাপদ ভাবতো। সেটা ওর আচরন দেখে বোঝা যেত। একদিন, পাখিটি উড়ে যাওয়ার পর বাসাটির নিকট গিয়ে দেখলাম, দুটি ডিম পেড়েছে। ডিম দুটি সাদার উপর লাল ফুটকি দেওয়া, দেখতে বেশ সুন্দর।

• কয়েকদিন পর দেখলাম, ডিম ফুটে দুটি বাচ্চা হয়েছে। এতদিন দেখতাম পাখিটি দিনে একবার বাসা থেকে বাহির হত। বাচ্চা হওয়ার পর, বাচ্চার উপযোগী খাবারের জন‍্য সারাদিন বিরাম থাকতো না। দিনের শেষে বাসায় এসে মায়ের স্নেহের পরশ যেন দুটি ডানা দিয়ে ঢেকে রাখতো। একটু একটু করে বাড়তে বাড়তে বাচ্চা দুটির শরীর পালকে ভরে গেল। বাচ্চা দুটি যেন অজানা পরিবেশকে জানার জন‍্য ছটপট করতো। একদিন আমরা বড়িতে না থাকায়, ওত পেতে থাকা বিড়ালটি বাচ্চা দুটি নিয়ে গেল। শিকারি বিড়ালটি যেন ঐ দিনটির জন‍্য অপেক্ষা করছিল। যা আমরা বুঝতে পারিনি বাড়ি এসে দেখি পাখিটি বিষন্ন মনে বসে আছে। কিছুক্ষন বসে থাকার পর পখিটি ‘করুন স্বরে’ শব্দ করে উড়ে গেল। যেন আমার কাছে অভিযোগ করলো, বাচ্চা দুটি কেউ নিয়ে গেছে। উদ্ধার করো। পরের দিন পখিটি আবার এল, যথারীতি ডালে বসলো, শূন্য বাসাটি দেখে কিছুক্ষন চুপ করে বসে, ‘করুন শব্দ’ করে উড়ে গেল। আরো এলো না। নিজেকে বড় অপরাধী মনে হলো। কারণ সন্তান ফিরে দিতে না পারলে ও সন্তানহারা পাখিটিকে সান্তনা দিতে পারিনি। কারন পাখির ভাষা আমার জানা নেই।

বার্তমানে মনুষ্য সমাজেও ‘মানবরূপী’ বিড়াল ঘুরে বেড়ায়। ছদ্মবেশী ‘মানবরূপী’ বিড়ালের মুখ দেখে আমরা চিনতে পারিনা। এই বিড়াল কখনো শিশু ‘পাচারকারী’ কখনো ‘নারীপাচাকারী’ হিসাবে মানব সমাজে ঘোরা ফেরা করে। সুযোগ পেলে শিকার ধরে। এ বিড়াল প্রত্যক্ষ ভাবে শিকারের মাংস না খেয়ে, শিকারকে কোনো পতিতালয়ে বা কোনো দালালকে বিক্রি করে অর্থ উপার্জন করে। সেই অর্জিত অর্থ দিয়ে দালান বাড়িতে সন্তান-সন্তততিদের নিয়ে মাংসের মাহাভোজের আয়োজন করে। কখনো কখনো ঐ অর্জিত অর্থের কিছু অংশ ঈশ্বরের (প্রভুর) সন্তুষ্টি লাভের উদ্দেশ্যে কোন উপাসনা গারে দান করে থাকে। অজান্তে সেই দান সমাজপতিগণ গ্ৰহন করেন। দানের ঐ অর্থ দ্বারা সমাজপতি কে সন্তুষ্ট করা গেলেও, যাঁর সন্তুষ্টি পাওয়ার জন্যে দান তাঁকে সন্তুষ্ট করা যায় না। কারণ ঈশ্বর বলেন– মানুষের সেবা করতে, মানুষকে পণ্য করতে নয়।

Check Also

একই সঙ্গে চারজন ভারতীয় বংশোদ্ভূত জয়ী হলেন মার্কিন মুলুকে, সৃষ্টি হল ইতিহাস!

নিউজ ডেস্ক: জয়জয়কার ভারতীয়দের! একই সঙ্গে চার জন ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন মুলুকে প্রাদেশিক ও স্থানীয় …

WBCS 2020: কিভাবে প্রস্তুতি নেবেন? কি বই পড়বেন? জেনে রাখুন বিস্তারিত!

নিউজ ডেস্ক: WBCS অফিসার হওয়া যেন রাজ্যের বেশির ভাগ চাকুরী প্রার্থীদের কাছে স্বপ্ন। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের …

ন্যায্য বেতন সহ কয়েক দফা দাবি নিয়ে আজ বড় শিক্ষক বিদ্রোহ দেখতে চলেছে রাজ্য বাসী!

নিউজ ডেস্ক: আবার পথে নামতে চলছেন রাজ্যের কয়েক হাজার প্রাথমিক শিক্ষক-শিক্ষিকারা। আজ ‘কোলকাতা চলোর’ ডাক …

বড় ধাক্কা বিজেপির, মহারাষ্ট্রে সরকার গড়বে তারাই জানিয়ে দিল শিবসেনা!

নিউজ ডেস্ক: মহারাষ্ট্রে সরকার গড়বে তাঁরাই, জানিয়ে দিল শিবসেনা। ফলে মারাঠা ভূমিতে খুব বড় ধাক্কা …

দিতে হবে না কোনো লিখিত পরীক্ষা, কেবল পদোন্নতির মাধ্যমেই হবে প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ!

নিউজ ডেস্ক: আর নয় লিখিত পরীক্ষা, এবার নির্দিষ্ট কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে পদোন্নতির মাধ্যমেই হওয়া যাবে …

শিক্ষক নিয়োগ মামলায় গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের

নিউজ ডেস্ক: অবশেষে শারীর শিক্ষা ও কর্ম শিক্ষা বিষয়ের শিক্ষক পদের চাকরি প্রার্থীদের জন্য কিছুটা …

বিশ্ব বার্তা

‘আমি আমার ২০ বছরে পর্যাপ্ত জীবন দেখে ফেলেছি, আর দেখার কিছু অবশিষ্ট নেই’, বলেই তিন তলা থেকে লাফ!

নিউজ ডেস্ক: ইন্ডিয়াান ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি হায়দ্রাবাদের (আইআইটি-এইচ) তৃতীয় বর্ষের ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষার্থী হায়দরাবাদের উপকণ্ঠের কান্দি …

Leave a Reply

Your email address will not be published.