Breaking News
Home / ভারত বর্ষ / গবেষণার মান বাড়াতে চার বছরের স্নাতক কোর্স চালু করার সুপারিশ করল ইউজিসি প্যানেল

গবেষণার মান বাড়াতে চার বছরের স্নাতক কোর্স চালু করার সুপারিশ করল ইউজিসি প্যানেল

বিশ্ব বার্তা নিউজ পোর্টাল: বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) গঠনকৃত এক কমিটি, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে গবেষণার মান প্রচার ও উন্নয়নের জন্য বর্তমান তিন বছরের স্নাতক কোর্সের পরিবর্তে চার বছরের সুসংহত কোর্স চালু করার সুপারিশ করেছে। 

ইউজিসির চার সদস্যের কমিটি ছাড়াও নতুন জাতীয় শিক্ষানীতি (এনইপি) নিয়ে কাজ করা এইচআরডি মন্ত্রক প্যানেলও চার বছরের আন্ডার গ্রাজুয়েট কোর্স চালু করার সুপারিশ করেছে। ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স বেঙ্গালুরুর প্রাক্তন পরিচালক, অধ্যাপক পি বালরামের নেতৃত্বে এই চার সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছিল।

অধ্যাপক পি বালরামে বলেন, “ডক্টরাল প্রোগ্রামের জন্য মেধাবী শিক্ষার্থীদের পাইপলাইন সরবরাহের জন্য ভালো মানের উপাদান সহ চার বছরের স্নাতক প্রোগ্রাম চালু করার সুপারিশ করা হয়েছে।” 

বিদ্যমান দুই বছরের এমএ এবং এমএসসি প্রোগ্রামগুলিতে একটি গবেষণা প্রকল্প রাখার সুপারিশ করা হয়েছে, যা সাধারণত 6-10 ক্রেডিটের হবে। এছাড়া সুযোগ সীমিত স্নাতক প্রোগ্রামগুলি (উদাহরণস্বরূপ, বায়োটেকনোলজিস বা বায়োইনফরম্যাটিক্সের মতো বিষয়গুলি) বন্ধ করা করারও সুপারিশ করা হয়েছে। তবে তিন বছর এবং চার বছরের উভয় কোর্স একই সঙ্গে চালু রাখারও উল্লেখ করা হয়েছে রিপোর্টে।

Check Also

কোনো ধর্মীয় গ্রন্থ নয় প্রমাণ অনুন, রাম জন্মস্থান পুনর্জীবন কমিটির আইনজীবীকে প্রধান বিচারপতি

বাবরি মসজিদ

সাজানো ভণ্ডামি, পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্রের সঙ্গে আপনি বর্বরতা করেছেন, মুখ্যমন্ত্রীকে মুকুল রায়

বেশ কিছুদিন ধরেই রাজ্যের শাসকদল জোর দিয়েছে জন সংযোগ কর্মসূচি। পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে দিদিকে বলো কর্মসূচি। এই কর্মসূচি উপলক্ষেই গত বুধবার দিঘার দত্তপুরে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। সেখানে দীঘর উন্নয়নের জন্য বেশ কিছু প্রকল্প ঘোষণা করেন। এরপর বাড়ি বাড়ি ঢুকে সাধারণ মানুষের অভাব-অভিযোগ শোনেন তিনি। যেতে যেতেই রাস্তার পাশে একটি চায়ের দোকানে ঢুকে নিজে হাতে চা বানান মুখ্যমন্ত্রী। এরপর তা পরিবেশনও করেন। এই ঘটনাকে জীবনের ছোটো ছোটো আনন্দদায়ক মুহূর্ত হিসাবেই অভিহিত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পদোন্নতির মাধ্যমে শিক্ষক নেওয়া হলে, আদৌ কি যোগ্য প্রার্থীরা প্রধান শিক্ষক হতে পারবেন? উঠছে প্রশ্ন!

এসএসসির মাধ্যমে সহ শিক্ষক নিয়োগে বারে বারে উঠেছে অভিযোগ। কখনো বা এনসিটির রুলস না মানা আবার কখনো বা যোগ্য প্রার্থীকে বাদ দিয়ে অযোগ্য প্রার্থীকে মেধা তালিকায় জায়গা করে দেওয়া। শুধুই যে সহ শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে এমন অভিযোগ আছে তা নয়, প্রধান শিক্ষক নিয়োগ নিয়েও উঠেছে একাধিক অভিযোগ। এসএসসির বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে আদালতে মামলা দায়ের হয়েছেও প্রচুর। ফলে রাজ্যের স্কুল গুলিতে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ বারেবারে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত: বিজেপির শরিক নেতা

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত

দীঘায় চলবে সি প্লেন, তৈরি হবে পুরীর মত জগন্নাথ দেবের মন্দির: মমতা ব্যানার্জী

দীঘা

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!