Breaking News
Home / প্রযুক্তি / এসইআরবি-ন্যাশনাল পোস্ট ডক্টরাল ফেলোশিপ (এন-পিডিএফ) এর সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন

এসইআরবি-ন্যাশনাল পোস্ট ডক্টরাল ফেলোশিপ (এন-পিডিএফ) এর সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন

বিশ্ব বার্তা নিউজ পোর্টাল: যারা পিএইচডি শেষ করেছেন এবং গবেষনার কাজে আরও বেশি করে যুক্ত থাকতে চান, ভারত সরকার তাদেরকে বেশ কিছু ফেলোশিপ প্রদান করে। এর মধ্যে অন্যতম হলো এসইআরবি-ন্যাশনাল পোস্ট ডক্টরাল ফেলোশিপ (এন-পিডিএফ)। আসুন আমরা জানার চেষ্টা করি এসইআরবি-ন্যাশনাল পোস্ট ডক্টরাল ফেলোশিপ (এন-পিডিএফ) এর ব্যাপারে।
উদ্দেশ্য:
এসইআরবি-ন্যাশনাল পোস্ট ডক্টরাল ফেলোশিপ (এন-পিডিএফ) উদ্দেশ্য হলো বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিষয়ের তরুণ গবেষকদের চিহ্নিত করা এবং গবেষণা করার জন্য তাদের আর্থিক সহায়তা প্রদান করা। গবেষকরা একজন মেন্টরের অধীনে কাজ করবে, এবং আশা করা হচ্ছে যে এই প্রশিক্ষণ তাদের একজন স্বাধীন গবেষক হিসাবে বিকাশ প্রদান করবে।
যোগ্যতা:
আবেদনকারী একজন ভারতীয় নাগরিক হতে হবে।
আবেদনকারীর অবশ্যই কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি / এম.ডি / এম.এস ডিগ্রী থাকতে হবে। যারা তাদের পিএইচডি / এম.ডি / এম.এস থিসিস জমা দিয়েছে এবং ডিগ্রি পাওয়ার অপেক্ষা করছেন তারাও আবেদন করার যোগ্য। যারা কেবল থিসিস জমা দিয়েছেন তারা যদি নির্বাচিত হন, তারা যোগ্য ডিগ্রী অর্জন না করা পর্যন্ত কম টাকার ফেলোশিপ পাবেন।
ফলোশিপের জন্য উচ্চ বয়সের উদ্ধ সীমা হলো 35 বছর বয়স। এসসি / এসটি / ওবিসি / শারীরিকভাবে চ্যালেঞ্জ ও মহিলা প্রার্থীদের প্রার্থীদের জন্য 5 (পাঁচ) বছরের বয়স সীমা ছাড় দেওয়া হয়।
কোনো প্রার্থী তার কর্মজীবনে মাত্র একবারই এনপিডিএফ এর সুযোগ সুবিধা পাবেন।
মেন্টরকে অবশ্যই ভারতে কোনো স্বীকৃত প্রতিষ্ঠানের নিয়মিত একাডেমিক / গবেষণার কাজে নিযুক্ত থাকতে হবে। তার অবশ্যই পিএইচডি থাকতে হবে।
কোনও মেন্টরের কোনও নির্দিষ্ট সময়ে দুটি SERB এনপিডিএফ এর বেশি রিসার্চ ফেলো থাকলে হবে না।
এনপিডিএফ, ইসিআরএ এবং সিআরজি (ইএমআর) (NPDF, ECRA and CRG (EMR)) এর আবেদনকারীরা যেকোনো একটি ক্যালেন্ডার বছরের মধ্যে মাত্র একবার তাদের আবেদন পত্র জমা দিতে পারবেন।
কিছু নিয়ম ও ফেলিশিপের সময়কাল:
এই ফেলোশিপ শুধুমাত্র ভারতে কোনো স্বীকৃত একাডেমিক প্রতিষ্ঠান, জাতীয় ল্যাবরেটরিজ এবং অন্যান্য স্বীকৃত উচ্চ প্রতিষ্টানে দেওয়া হবে। হোস্ট ইনস্টিটিউট প্রয়োজনীয় প্রশাসনিক এবং অনন্য সহায়তা প্রদান করবে। নিজের গাইডস / কো-গাইড এর কাছে এনপিডিএফ কাজ করার অনুমতি দেওয়া হবে না। সাধারণত যেখান থেকে প্রার্থীরা তাদের পিএইচডি / এম.এস / এম.ডি ডিগ্রি অর্জন করেছেন সেখানে এনপিডিএফ করা যাবে না। এটি কেবল একটি অস্থায়ী নিয়োগ এবং 2 বছর সময়কালের জন্য এই ফেলোশিপ দেওয়া হবে। ফেলরাা কেমন ফেলশিপ পাবেন তা জানতে নিচের টেবিলটি দেখুন-

Sl. No.Budget HeadAmount
1FellowshipRs. 55,000/- per month (consolidated)
Rs. 35,000/ p.m for candidates who have submitted the thesis but degree not yet awarded
2Research GrantRs. 2,00,000/- per annum
3OverheadsRs. 1,00,000/- per annum

গবেষণার সুবিধার জন্য বিভিন্ন সারঞ্জাম কেনা এছাড়া ট্রাভেল গ্রান্ট হিসাবে ফেলোশিপ গ্রান্ট ব্যাবহার করতে হবে। মেন্টর সম্পূর্ণ গবেষণা সময়কালে রিসার্চ ফেলোকে সহায়তা প্রদান করবে।
ফেলোরা এই ফেলশিপের মেয়াদে শেষ না হওয়া পর্যন্ত আর কোনও সরকারী বা বেসরকারী উৎস থেকে অন্য কোনও ফেলোশিপ গ্নিতে পারবেন না।

কিভাবে আবেদন করবেন:
আবেদনকারীদের প্রথমে www.serbonline.in ওয়েবসাইটে নাম রেজিস্ট্রেশন করতে হবে এরপর লগ ইন করে, আবেদনকারীকে প্রোফাইলের অধীনে বিস্তারিত বিভাগে সমস্ত বাধ্যতামূলক ক্ষেত্রগুলি পূরণ করতে হবে।
প্রজেক্ট টাইটেল (সর্বোচ্চ 500 অক্ষর), প্রজেক্ট সারাংশ (সর্বোচ্চ 3000 অক্ষর), কীওয়ার্ড (সর্বোচ্চ 6), প্রজেক্টের উদ্দেশ্য (সর্বোচ্চ 1500 অক্ষর), প্রস্তাবিত আউটপুট এবং প্রস্তাবিত ফলাফল (সর্বোচ্চ 1500 অক্ষর) ইত্যাদি আবেদনপত্র জমা দেওয়ার সময় অনলাইনে প্রদান করতে হবে।
কাজ পদ্ধতি এবং গবেষণা পরিকল্পনা দুটি একক পিডিএফ ফাইলে আপলোড করতে হবে যেটা 3 পৃষ্ঠার কম হবে (সর্বোচ্চ 10 মেগাবাইট)।
যে ডকুমেন্টস গুলো অবশ্যই লাগবে, সেগুলো হলো:
নির্দিষ্ট ফরম্যাট অনুযায়ী বায়োডাটা।
বয়সের প্রমানের সার্টিফিকেট।
শিক্ষাগত যোগ্যতার সার্টিফিকেট।
ক্যাটাগরি সার্টিফিকেট।
আবেদনকারীর দ্বারা প্রতিশ্রুতি সার্টিফিকেট।
মেন্টর এবং হোস্ট ইনস্টিটিউট থেকে সমর্থনকারী শংসাপত্র।
মেন্টরের বায়োডাটা।
প্রোগ্রাম উপদেষ্টা / সমন্বয়কারী এবং প্রোগ্রাম অফিসারদের নাম নীচে দেওয়া হল-

Sl. No.Name of the ProgrammeProgramme Coordinator (Finance)Programme Officer
1Chemical SciencesDr. Praveen Kumar S
Scientist E
Dr. S.V. Prasanna
Scientist C
2Earth & Atmospheric Sciences-Dr. Rajwant
Scientist E
3Engineering Sciences-Dr. V. Ramesh
Scientist C
4Life Sciences-Dr. T. Thangaradjou
Scientist E
6Physical & Mathematical Sciences-Dr. K.K. Magesh Kumar
Scientist C

Check Also

সাজানো ভণ্ডামি, পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্রের সঙ্গে আপনি বর্বরতা করেছেন, মুখ্যমন্ত্রীকে মুকুল রায়

বেশ কিছুদিন ধরেই রাজ্যের শাসকদল জোর দিয়েছে জন সংযোগ কর্মসূচি। পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে দিদিকে বলো কর্মসূচি। এই কর্মসূচি উপলক্ষেই গত বুধবার দিঘার দত্তপুরে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। সেখানে দীঘর উন্নয়নের জন্য বেশ কিছু প্রকল্প ঘোষণা করেন। এরপর বাড়ি বাড়ি ঢুকে সাধারণ মানুষের অভাব-অভিযোগ শোনেন তিনি। যেতে যেতেই রাস্তার পাশে একটি চায়ের দোকানে ঢুকে নিজে হাতে চা বানান মুখ্যমন্ত্রী। এরপর তা পরিবেশনও করেন। এই ঘটনাকে জীবনের ছোটো ছোটো আনন্দদায়ক মুহূর্ত হিসাবেই অভিহিত করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পদোন্নতির মাধ্যমে শিক্ষক নেওয়া হলে, আদৌ কি যোগ্য প্রার্থীরা প্রধান শিক্ষক হতে পারবেন? উঠছে প্রশ্ন!

এসএসসির মাধ্যমে সহ শিক্ষক নিয়োগে বারে বারে উঠেছে অভিযোগ। কখনো বা এনসিটির রুলস না মানা আবার কখনো বা যোগ্য প্রার্থীকে বাদ দিয়ে অযোগ্য প্রার্থীকে মেধা তালিকায় জায়গা করে দেওয়া। শুধুই যে সহ শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে এমন অভিযোগ আছে তা নয়, প্রধান শিক্ষক নিয়োগ নিয়েও উঠেছে একাধিক অভিযোগ। এসএসসির বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে আদালতে মামলা দায়ের হয়েছেও প্রচুর। ফলে রাজ্যের স্কুল গুলিতে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ বারেবারে বাধাপ্রাপ্ত হয়েছে।

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত: বিজেপির শরিক নেতা

এক দেশ, এক পরিবার, এক সন্তান, আইন করে চালু করা উচিত

দীঘায় চলবে সি প্লেন, তৈরি হবে পুরীর মত জগন্নাথ দেবের মন্দির: মমতা ব্যানার্জী

দীঘা

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

সরকারের অনৈতিক সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু রাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

অতিথি অধ্যাপকদের স্থায়ীকরণে ইউজিসির নিয়মকে লঙ্ঘন, আদালতের পথে চাকুরী প্রার্থীদের একাংশ!

কলেজের অতিথি অধ্যাপকদের ধামাকাদার বেতন বৃদ্ধি

কলেজের অতিথি অধ্যাপকদের ধামাকাদার বেতন বৃদ্ধি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *