Breaking News
Home / পশ্চিমবঙ্গ / “আমি সাধ্যমত খেয়াল রাখার চেষ্টা করতাম, মা যে এত সুন্দর গান করতে পারে তা আমার জানা ছিল না”, রাণু মন্ডলের মেয়ে

“আমি সাধ্যমত খেয়াল রাখার চেষ্টা করতাম, মা যে এত সুন্দর গান করতে পারে তা আমার জানা ছিল না”, রাণু মন্ডলের মেয়ে

বিশ্ব বার্তা নিউজ পোর্টাল: কিছুদিন আগেই রানাঘাট রেল স্টেশনে লতা মঙ্গেশকরের ‘এক পিয়ার কা নাগমা হ্যা’ গান গেয়ে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছেন। বলিউডে গান গেয়ে এখন তিনি সেলেব রাণু। কিন্তু মা যে এত সুন্দর গান গাইতে পারেন তা জানতেন না রাণু মন্ডলের মেয়ে সাথী। তিনি বলেন, “মা যে এত সুন্দর গান করতে পারে তা আমার জানায় ছিল না, বা বলতে পারেন কল্পনাতীত”। তিনি এটাও জনতেননা না যে তাঁর মা স্টেশনে গান গাইতো। নিয়মিত মাকে দেখতে না গেলেও মায়ের সাথে যোগাযোগ ছিল বলে মন্তব্য করেছেন মেয়ে সাথী রায়। বৃদ্ধ বয়সে মাকে ছেড়ে চলে যাবার অভিযোগে ইন্টারনেটে জগতে তাঁকে সমলচনার মুখে পড়তে হচ্ছে, যদিও তিনি জানিয়েছেন “মাকে আমি সাধ্যমত খেয়াল রাখার চেষ্টা করতাম, আমি নিজে এক সন্তানের মা, আর একটা ছোট মুদিখানা আমার রোজগারের মাধ্যম, তবুও মাকে অনেকবার বলেছি কাছে থাকতে কিন্তু মা বার বার তা প্রত্যাখ্যান করে।” 

তিনি আরো বলেন “আমি জানতাম না মা স্টেশনে গান করে কারন আমি নিয়মিত যেতে পারতাম না। কয়েকমাস আগে ধর্মতলাতে যাবার সময় মাকে একটি বাস স্টেশনে বসে থাকতে দেখি, আমি মাকে বলি এখুনি বাড়ি চলে যেতে ও 200 টাকা হাতে দিই। মাকে আমি প্রায়শই 500 টাকা করে ব্যাংক একাউন্টে পাঠাতাম, আমি নিজে বিবাহ বিচ্ছেননা একটা মেয়ে ও দোকান টাই আমার সম্বল, একটা মেয়ে হয়ে কদিকে সামলাব। আর আমার আর্থিক ও মানসিক অবস্থাটা না বুঝে সকলে আমার বিরুধ্যে, কার কাছে বা যাবো?”

রাণু মন্ডলের গানটি ভাইরাল হবার পর এক রিয়েলিটি শোতে গাওয়ার জন্য সুরকার হিমেশ রেশমিয়া আমন্ত্রণ জানায় তাঁকে। 59 বছর বয়সে তিনি হিমেশের আগামী ছবি ‘Happy Hardy And Heer’ এর জন্য আদত ও তেরিমেরি গান রেকর্ড করেন।

সাথী রায় আরও বলেন, “আমি মায়ের প্রথম পক্ষের সন্তান, তার এক বড় দাদা আছেন। দ্বিতীয় পক্ষের দুটি সন্তান আছে। কিছু বছর আগে বাবা মারা গেছেন। মায়ের দ্বিতীয় পক্ষের ছেলে সম্ভবত মুম্বাই তে আছে, আর ভাই বা দাদা দের সাথে কোনো যোগাযোগ নেই। দাদা বা ভায়েরা কেন মায়ের দায়িত্ব নেই না? সকলে কেন তাদেরকে দোষ দেয়না? তারাও সামনে এসে মায়ের দায়িত্ব নিক।

অতীন্দ্র চক্রবর্তী ও তপন দাসের উদ্দেশ্যে সাথী রায়ের মন্তব্য: “মনে হচ্ছে এরা দুজন মায়ের নিজের সন্তান, তাঁরা ও ক্লাবের অন্যান্য সদস্যরা আমাকে মায়ের কাছে যেতে দিচ্ছে না, যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে পা ভেঙে দেবে বলে হুমকি দিচ্ছে, মায়ের সাথে ফোনে কথা টুকুও বলতে দেয়না, খুব কষ্টে আছি। ওরা মেয়ের বিরুধ্যে মায়ের মগজ ধোলাই করছে, ওরা খ্যাতি চায়, তপন মায়ের কাছ থেকে টাকা নেই নিত্য প্রয়জনীয় সামগ্রী কেনার অজুহাতে। ওরা মায়ের কাছ থেকে 10,000 টাকা নিয়েছে আর এর বদলে কেবল একটা সুটকেস ও কয়েকটা নাইটি কিনে দিয়েছে।”

“যদিও সবাই আমাকে দোষ দিচ্ছে তবুও মায়ের পাশে থাকবো। মাকে অনুরোধ করবো আমার সাথে সিউড়িতে থাকতে, তবে জোর করবোনা…… তিনি জীবনের অনেকটা সময়ই পর করেছেন। আমার সৌভাগ্যের ব্যপার যে আমি তাঁর মেয়ে হয়ে এই পৃথিবীতে জন্মাতে পেরেছি।”

Check Also

আজ কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্মদিন, আজ বাংলার গর্বের দিন

নিউজ ডেস্ক: উনিশ শতকের প্রথম ভাগ থেকেই বাংলা তথা ভারতে যে নবজাগরণ শুরু হয়েছিল, তার …

পিএইচডিতে ভর্তির নতুন বিজ্ঞপ্তি জারি করল নেতাজি সুভাষ মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়

নিউজ ডেস্ক: ভালো খবর উচ্চ শিক্ষা নিতে আগ্রহী পড়ুয়াদের জন্য। খুব শীঘ্রই নেতাজি সুভাষ মুক্ত …

জমা পড়ল লিখিত অভিযোগ, ৪০০ স্কুল শিক্ষকের ব্যাপারে তদন্তে পর্ষদ, হতে পারে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি!

নিউজ ডেস্ক: স্কুল শিক্ষকদের প্রাইভেট টিউশন পড়ানোর বিরুদ্ধে বেশ কিছুদিন ধরেই সরব ওয়েস্ট বেঙ্গল প্রাইভেট …

বড় ভাঙন বিজেপিতে, অন্তত ৬০০ জন বিজেপির নেতা-কর্মীর তৃণমূলে যোগদান!

নিউজ ডেস্ক: আবার ভাঙন গেরুয়া শিবিরে। এবার বিজেপির বড় ভাঙন হল হুগলিতে। কলকাতার মেয়র তথা …

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভাতেও পাশ হতে চলেছে নাগরিকত্ব আইন বিরোধী প্রস্তাব, বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

নিউজ ডেস্ক: এর আগে কেরল ও পঞ্জাব বিধানসভায় পাস হয়েছে। এবার পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভাতেও পাশ হতে …

গতবারের থেকে অনেকটাই বাড়ল সেট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা, পরীক্ষা হল নির্বিঘ্নেই

নিউজ ডেস্ক: গতকাল সম্পন্ন হল স্টেট এলিজিবল টেস্ট বা সেট পরীক্ষা। এবারে একধাক্কায় অনেকটাই বাড়ল …

রোপা ২০১৯: অপশন ফর্ম, ফিক্সেশন ও স্যালারি বিল জমা করার গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশিকা

নিউজ ডেস্ক: রাজ্যের শিক্ষকদের চলতি বছরের জানুয়ারি থেকেই নতুন বেতনক্রম হারে মাইনে পেতে হলে পূরণ …