Breaking News
Home / চাকরির খবর / আবার পিছিয়ে গেল এসএসসির আপারের রায়দান, পরবর্তী শুনানি ৩০ সেপ্টেম্বর, চলছে চাকুরীপ্রার্থীদের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা!

আবার পিছিয়ে গেল এসএসসির আপারের রায়দান, পরবর্তী শুনানি ৩০ সেপ্টেম্বর, চলছে চাকুরীপ্রার্থীদের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা!

বিশ্ব বার্তা নিউজ পোর্টাল: চলছে কেবল টালবাহানা। নেই কোনো সমাধান। বারবার কেনো শুধু শিক্ষিত চাকুরীপ্রার্থীদের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা হবে। কেন পাওয়া যাবে না কোনো সমাধান!

আবার পিছিয়ে গেল এসএসসির গুরুত্বপূর্ণ টেট মামলার রায় দান। এই মামলার রায়ের দিকে তাঁকিয়ে ছিল কয়েক হাজার হবু শিক্ষকেরা। এই মামলার রায় ঘোষণা হলে ভাগ্য খুলে যেত বহু পরীক্ষার্থীর। আবার আশাহত হতে হল তাঁদের। উচ্চ প্রাথমিক স্তরের শিক্ষক নিয়োগের শুনানি আবার পিছিয়ে গেল। পরবর্তী শুনানির তারিখ হল ৩০ সেপ্টেম্বর। পুজোর আগে এই কেসের সমাধান হবে না বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

বারবার রায়দান পিছিয়ে যাওয়ায় প্রচন্ড ক্ষুদ্ধ চাকুরীপ্রার্থীরা। তাঁরা বলছেন, ‘আর কতদিন? দেখতে দেখতে পাঁচ বছর কেটে গেল। জীবন থেকে পাঁচ বছর হারিয়ে গেল অবলীলায়। সঙ্গে আছে প্রবল গঞ্জনা। শিক্ষিত হওয়ার গঞ্জনা। শিক্ষক হবার আশার গঞ্জনা! সত্যিই কি এর শেষ নয়? জীবন ধীরে ধীরে যেন শেষ হয়ে যাচ্ছে।’ সঙ্গে তাঁর প্রশ্ন তুলেছেন এসএসসির দিকে, একই ভাবে প্রশ্ন তুলেছেন হাইকোর্টের দিকে, ‘আর কতদিন অপেক্ষা করতে হবে? আর কতদিন পর স্টে উঠবে? আর কতদিন পর আপারের ফাইনাল মেরিট প্যানেল বের হবে?’ সত্যিই কি এর কোনো উত্তর আছে!

প্রসঙ্গত, রাজ্যের স্কুলগুলোর উচ্চ প্রাথমিক স্তরে শূন্যপদে শিক্ষক নিয়োগের জন্য ২০১৫ সালের ১৬ আগস্ট রাজ্য জুড়ে টেট পরীক্ষা নেয় এসএসসি। ফল প্রকাশের পর দেখা যায় প্রশিক্ষিত প্রার্থী হিসাবে এক লক্ষ কুড়ি হাজার এবং অপ্রশিক্ষিত পরীক্ষার্থী হিসাবে এক লক্ষ আট হাজার জন পাস করেছেন। এরপরেই অভিযোগ আসে ইন্টারভিউয়ের জন্য প্রশিক্ষিত প্রার্থীদের না ডেকে অপ্রশিক্ষিত প্রার্থীদের ডাকছে এসএসসি।

প্রশিক্ষিত পরীক্ষার্থীরা প্রশ্ন করছেন, এনসিটিই-র নিয়ম অনুযায়ী আগে প্রশিক্ষিতদের সু্যোগ দিতে হবে। এরপরেও প্রশিক্ষিতদের সুযোগ না দিয়ে কেন অপ্রশিক্ষিতদের সুযোগ করে দিচ্ছে এসএসসি? একই সঙ্গে পরীক্ষার সচ্ছতা বিষয়ে প্রশ্ন তুলে তাঁরা বলছেন, সমস্ত প্রার্থীর অ্যাকাডেমিক রেজাল্ট এবং টেটের প্রাপ্ত নম্বর কেন প্রকাশ করছে কমিশন? এর পরেই নিয়োগের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে আদালতের শরণাপন্না হন বেশ কিছু প্রশিক্ষিত পরীক্ষার্থী। সেই মামলার শুনানি আবার পিছিয়ে গেল।

দীর্ঘ পাঁচ বছর স্কুলগুলিতে উচ্চ-প্রাথমিক স্তরে শিক্ষক নিয়োগ বন্ধ হয়ে রয়েছে। শিক্ষকের অভাবে প্রবল সমস্যায় রয়েছে স্কুলগুলো। শিক্ষকের অভাবে পঠন-পাঠনে ব্যাপক ভাবে ব্যাহত হচ্ছে। কিন্তু সমাধান অধরা!

Check Also

দেশের মুখ বারবার মুখ উজ্জ্বল করবে বাঙালি, আবার NRC-তেও বাঙালি!

বিশ্ব বার্তা: এবছর অর্থনীতিতে নোবেল পেয়ে দেশের মুখ উজ্জ্বল করেছেন অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। অমর্ত্য সেনের …

অর্থনীতির হাত ধরে আবার বাঙালির বিশ্বজয়!

বিশ্ব বার্তা: আবার বাঙালির বিশ্বজয়। অমর্ত্য সেনের পর আবার অর্থনীতিতে নোবেল জয় বাঙালির। “বৈশ্বিক দারিদ্র্য …

গান্ধী কীভাবে আত্মহত্যা করেছিলেন, অবাক প্রশ্ন গুজরাটের একটি স্কুলে!

আহমেদাবাদ: আমরা সবাই জানি মহাত্মা গান্ধী কে হত্যা করা হয়েছিল। তাঁকে হত্যা করেছিল নাথুরাম গডসে। …

কি কারণে আত্মহত্যা করতে হল মেধাবী গণিতের গবেষককে? আছে কি সিএসসির গণিতের মেধা তালিকার কোনো সম্পর্ক!

বেলদা: গতকাল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের এক গবেষক ছাত্রের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃত …

এসএসসি: কমছে অ্যাকাডেমিক নম্বর, হতে পারে সেটের মত পরীক্ষা,চলছে আপারের অভিযোগ খতিয়ে দেখা!

কোলকাতা: দুর্নীতি নিয়ে বারে বারে অভিযোগ উঠছে এসএসসির বিরুদ্ধে। ফলে বিতর্ক বন্ধ করতে এবার নিয়োগ …

আপনি যতটা মনে করছেন তার থেকেও শোচনীয় অবস্থা ভারতের বর্তমান আর্থিক অবস্থার: রাজন

বিশ্ব বার্তা: বর্তমানে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা নিয়ে অনেক লেখা লিখি হচ্ছে বিভিন্ন পত্র পত্রিকায়। রাজকোষের …

জিয়াগঞ্জ ও ফালাকাটার ঘটনার প্রতিবাদে ১৭ ই অক্টোবর, দুপুর ১২ টায় বিশাল প্রতিবাদ মিছিলের ডাক দিল শিক্ষক শিক্ষাকর্মী শিক্ষানুরাগী ঐক্য মঞ্চ

বিশ্ব বার্তা: দশমীর দিন জিয়াগঞ্জের লেবুবাগানে নিজের বাড়িতেই শিক্ষক বন্ধুপ্রকাশ পাল খুন হন তাঁর স্ত্রী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *